লামায় বসতঘরে লুটপাটের অভিযোগ

বান্দরবানের লামা উপজেলায় একটি বসতঘর লুটপাট ও গৃহবধূর শ্লীলতাহানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি চিউনী ক্যাম্প বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় গৃহবধূ সালমা আক্তার বাদি হয়ে সোমবার দিবাগত রাতে ৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৭-৮ জনের বিরুদ্ধে লামা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। উল্লেখিত অভিযুক্তরা হলেন- চিউনী ক্যম্প বাজারের বাসিন্দা আবদু ছালামের ছেলে রফিকুল ইসলাম (২৮), মোহাম্মদের ছেলে জয়নাল আবেদীন (২৩), গফুরের ছেলে মো. ইউনুছ (২৬), হাতির টিলা এলাকার বাসিন্দা আবদু ছোবহান (৩৮), জাহেদ লতিফ পাড়ার বাসিন্দা মো. সিরাজের ছেলে জাহাঙ্গীর (২৫) ও মৃত মালেক সর্দারের ছেলে সিরাজ (৪৯)।
লিখিত অভিযোগে জানা যায়, গৃহবধূ সালমা আক্তারের স্বামী মো. নুরুজ্জামান বাড়িতে না থাকার সুযোগে রবিবার দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে অভিযুক্তরা সংঘবদ্ধ হয়ে দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে হামলা চালায়। প্রতিবাদ করলে ঘরে থাকা গৃহবধূর দেবর মোখলেছুর রহমান ও ছোট ভাই মামুনকে বেঁধে ফেলে অভিযুক্তরা। পরে গৃহবধূ এগিয়ে গেলে অভিযুক্তরা তাকে মারধর ও গলাটিপে হত্যার চেষ্টা করে এবং টানা হেচড়া করে শ্লীলতাহানি করে।
এ সময় ঘরে রক্ষিত মোবাইল, স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকাসহ প্রায় ১ লাখ ২৬ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় অভিযুক্তরা। পরে স্বজনেরা তাকে উদ্ধার করে কাছাকাছি চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তবে অভিযুক্তরা অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবী করেন। আজিজনগর পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ লেয়াকত আলী বলেন, বসতঘর লুটপাটের ঘটনায় কেউ অভিযোগ করেননি, অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।