লামায় সন্ত্রাসী হামলায় ৮ ব্যবসায়ী আহত

লামায় সন্ত্রাসী হামলায় আহতরা
বান্দরবানের লামা উপজেলায় সন্ত্রাসীদের হামলায় ৮ কাঠ শ্রমিক ও ব্যবসায়ী আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদর ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি পোপা খালের আগায় এই ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহতরা হলেন,লামা পৌরসভা এলাকার নয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত লোকমান হোসেনের ছেলে নুরুল আমিন (৫৫), লামামুখ গ্রামের বাসিন্দা মৃত আবদুল মজিদের ছেলে আবদুল জলিল (৬৫) ও তার ছেলে মো. জসিম উদ্দিন (৩৫), সেরু মিয়ার ছেলে দুলাল মিয়া (৪৫)। এদের মধ্যে আব্দুল জলিল ও দুলাল মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দায়িত্বরত চিকিৎসক তাদেরকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। বাকি ৪ জন স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা গ্রহন করেন। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে আহত ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদেরকে দেখতে লামা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইসমাইল ও থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান।
স্থানীয় ও আহত সূত্র জানান, আট শ্রমিক ও ব্যবসায়ী ব্যবসায়িক কাজে বুধবার দুপুরে লামা সদর ইউনিয়নের পোপা হেডম্যান পাড়ায় যান। সেখানে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা জলপাই রংয়ের পোশাক পরিহিত ১২-১৩ জনের একদল পাহাড়ি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী টোকেন আছে কিনা জিঙ্গাসা করেন। তারা টোকেন নেই বলার সাথে সাথে বেধড়ক মারধর শুরু করে সন্ত্রাসীরা। এতে ৮ জন আহত হন। পরে স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।