লামায় সেনাবাহিনীর অভিযানে ২৩৪০ ঘনফুট কাঠ আটক

বান্দরবানের লামা উপজেলায় একটানা দুইদিন অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ৩৪০ ঘনফুট কাঠ আটক করেছে সেনাবাহিনী। উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি মাঈন উদ্দিন পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব কাঠ আটক করা হয়। আটককৃত কাঠগুলোর স্থানীয় বাজার মূল্য প্রায় ১৪ লাখ টাকা বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে লামা চাম্পাতলী আর্মি ক্যাম্পের সদস্যরা গত ৩০ জুন রাত ৮টা থেকে ২ জুলাই রাত ১১টা পর্ষন্ত আজিজনগর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। এ সময় মাঈনউদ্দিন পাড়া থেকে ২ হাজার ৩৪০ ঘনফুট হাইব্রিড একাশিয়া গাছ আটক করেন। পরে আটককৃত কাঠ স্থানীয় ডলুছড়ি বন রেঞ্জে হস্তান্তর করে সেনাবাহিনী।

এসব কাঠের মালিকানা দাবী করে জনৈক আজিজুর রহমান (প্রকাশ কালা ধোয়া) ও ওসমান গণি (প্রকাশ গেইট বাবুল)। জানান, তারা স্থানীয় বাগান মালিকদের কাছে থেকে লট হিসেবে ক্রয় করে এসব গাছ কর্তনপূর্বক পরিবহনের জন্য মজুদ করেন।

কিন্তু তারা সরকারের ট্রানজিট রোল অমান্য করায়, সেনাবাহিনী কাঠগুলো জব্দ করে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেন। এসব গাছ হাইব্রিড একাশিয়া জাতের।

কাঠ আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে লামা বন বিভাগের ডলুছড়ি রেঞ্জ কর্মকর্তা মো: জসিম উদ্দিন বলেন, বন বিভাগের লোকবল সংকট থাকায় ও দুর্গম পাহাড়ি এলাকা কারণে অভিযান পরিচালনা করা অনেক সময় অসম্ভব হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় অবৈধ কাঠ পাচার ও মজুতকারীদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা করা হবে। অবৈধ গাছের চালান আটক করে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করায় সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদও জানান তিনি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।