লামায় সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির নির্বাচন ১৭ ফেব্রুয়ারী

লামা-আলীকদম-থানচি-পোয়ামুহুরী ও চকরিয়া সড়ক পরিবহণ মালিক সমবায় সমিতির বহুপ্রতিক্ষিত নির্বাচন আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত হবে।

এ নির্বাচনে ৯টি পদে ২১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। তৎমধ্যে সহ-সভাপতি পদের প্রার্থী মো: জমির হোছাইন তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেন। মঙ্গলবার (১৫ ফ্রেব্রুয়ারী) সকালের দিকে চকরিয়া পৌর বাসটার্মিনালস্থ পরিবহণ সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন মাধ্যমে সহ-সভাপতি প্রার্থী মো: জমির হোছাইন নির্বাচন থেকে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে সরে দাঁড়ানোর ঘোষনা দেন। এদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলছে উপজেলাগুলোতে উৎসবের আমেজ। তীব্র শীত উপেক্ষা করে প্রার্থীরা যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে চার উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা।

জানাগেছে, চকরিয়া-লামা-আলীকদম-থানচি-পোয়ামুহুরী সড়ক পরিবহণ মালিক সমবায় সমিতি অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল গত ৪ ফ্রেব্রুয়ারী। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের নির্ধারিত সময় বেঁধে দেয়া থাকলেও পারিবারিক ভাবে নানা সমস্যার কারণে সহ-সভাপতি প্রার্থী মো: জমির হোছাইন তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে পারেনি। নির্বাচনের সহ-সভাপতি প্রার্থী জমির হোছাইন পারিবারিক সমস্যা ও তার ছোট্ট শিশু খুবই অসুস্থ জনিত কারণে দীর্ঘ ৫ দিন ধরে জম জম হাসপাতালে রয়েছেন। পরে তার অবস্থা আরো কঠিন হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসকরা। শিশুটির এহেন পরিস্থতি ও বিভিন্ন সমস্যা উত্থাপন করে মঙ্গলবার সকালে অনুষ্টিতব্য নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কাছে লিখিত আবেদন ও সংবাদ সম্মেলন মাধ্যমে অত্র নির্বাচন থেকে তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন।

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানো সভাপতি প্রার্থী মো: জমির হোসেন হোছাইন বলেন, নির্বাচনে আমি সহ-সভাপতি পদে প্রার্থী ছিলাম। আমার ব্যক্তিগত ও পারিবারিক নানা অসুবিধার কারণে অত্র নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদের প্রার্থী থেকে আমার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিলাম। এ নিয়ে সমিতির সম্মানিত সকল সদস্যকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্যও অনুরোধ জানান প্রার্থী মো. জমির হোছাইন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।