লামা শহরকে বন্যা মুক্ত করতে মানববন্ধন

লামা শহরকে বন্যামুক্ত করতে প্রস্তাবিত পথে নদীর গতি পরিবর্তনের দাবীতে মানববন্ধন
বান্দরবানের লামা পৌর শহরকে বন্যা মুক্ত করতে প্রস্তাবিত পথে মাতামুহুরী নদীর গতি পরিবর্তনের দাবীতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে সচেতন নাগরিক কমিটি, সচেতন যুব সমাজ, শহর বাজার ব্যবসায়ী সমিতি ও বেসরকারী সংস্থা আইএইচপিডি‘র ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে ব্যবসায়ীসহ শতশত নারী পুরুষ অংশ গ্রহণ করেন। ‘ত্রাণ চাই না, শহরকে বন্যামুক্ত করতে নদীর গতি পরিবর্তন চাই’ এ শ্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান থোয়াইনু অং চৌধুরীর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ মাহাবুবুর রহমান, পৌরসভার কাউন্সিলর মো. সাইফুদ্দিন ও মোহাম্মদ রফিক, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাপান বড়ুয়া, আইএইচপিডি’র চেয়ারম্যান মংক্যচিং মার্র্মা, পৌর ছাত্রদলীগের সভাপতি মোহাম্মদ শাহীন প্রমুখ। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খিনওয়ান নু’র মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।
প্রসঙ্গত: প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের সৃষ্ট বন্যার পানিতে ৪-৫ বার লামা পৌরসভা এলাকা প্লাবিত হয়। এতে সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানসহ হাজার হাজার ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতি হয়ে থাকে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ১৯৯৭ সালে সরকার বন্যার কবল থেকে লামা শহরকে রক্ষার জন্য মাতামুহুরী নদী গতি পরিবর্তনের একটি প্রকল্প হাতে নেয়। লামা বাজার থেকে ১ মাইল উত্তরে অবস্থিত মাতামুহুরী ও বমু নদীর সংগম স্থলে স্থানটি নির্ধারণ করা হয়। এ স্থানে অবস্থিত একটি পাহাড়ি ঝিরি কেটে দিলেই গতি পরিবর্তন সম্ভব। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে সেই প্রস্তাবিত লাল ফিতায় বন্দি আছে। অথচ এ প্রকল্পের জন্য এক কোটি টাকাও বরাদ্দ ঘোষনা করেন তৎকালীন সরকার।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।