শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নে ভূমি বিরোধ কমিশনের বিধিমালা প্রণয়ন জরুরী : মং সার্কেল চীফ

খাগড়াছড়ির মং সার্কেল চীফ সাচিং প্রু চৌধুরী
পাহাড়ের বড় সমস্যা ভূমি বিরোধ সমাধানে পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনকে কার্যকর করা জরুরী। আইন সংশোধন হলেও বিধিমালা প্রণয়ন না হওয়ায় কমিশনের কার্যক্রম থমকে আছে। পার্বত্য চট্টগ্রামের ভূমি সমস্যা সমাধানে কমিশনের বিধিমালা আইন পাস করে কার্যক্রম শুরু করা গেলে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নের পথ আরও সুগম হবে বলে মন্তব্য করেছেন খাগড়াছড়ির মং সার্কেল চীফ সাচিং প্রু চৌধুরী।
আজ রোববার দুপুরে খাগড়াছড়ি পৌর টাউন হলে মুক্তিযোদ্ধা ও প্রয়াত মং সার্কেল চীফ মং প্রু সেইনের স্মরণে খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের আয়োজনে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের অধিনায়ক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হামিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে আগামী প্রজন্মকে পরিবার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে হবে। মহান মুক্তিযুদ্ধে পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের অবদান ছিল। প্রয়াত মং প্রু সেইন নিজের রাজভান্ডার বিলিয়ে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের সহায়তা করেছেন। পার্বত্য চট্টগ্রামকে বাংলাদেশের ভূ-খন্ড থেকে যারা পৃথক রাষ্ট্র বানানোর চেষ্টা করছেন তাদের প্রতিহত করতে সকলকে সজাগ থাকার আহবান জানান।
অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মো: শহীদুল ইসলাম, বিজিবি সেক্টরের অধিনায়ক কর্ণেল গাজী মুহাম্মদ সাজ্জাদসহ উর্ধ্বতন সামরিক বেসামরিক কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা,জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভা শেষে প্রয়াত মং সার্কেল চীফ মং প্রু সেইনের স্মরণে খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন দ্বিতীয়বারের মতো ৪০ জন জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার্থীর মাঝে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।