শান্তি চুক্তির সুন্দর পরিবেশকে নষ্ট করতে বিভিন্ন মহল কাজ করছে : মন্ত্রী বীর বাহাদুর

পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন সম্পর্কে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, পার্বত্যাঞ্চলে দীর্ঘ দুই যুগ অশান্ত পরিবেশ ছিল, সংঘাতময় পরিবেশ ছিল । সে পরিবেশকে শান্ত করার জন্য আস্থার মাধ্যমে একটি চুক্তি করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চুক্তি একটি চলমান প্রক্রিয়া। যেগুলো বাস্তবায়ন হয়নি সেগুলো ধীরে ধীরে হবে। কিন্তু সুন্দর এ পরিবেশকে ধ্বংস করার জন্য, নষ্টের জন্য, উন্নয়নকে বাঁধা দেয়ার জন্য, আইনশৃঙ্খলাকে নষ্ট করার জন্য বিভিন্ন মহল পাহাড়ে হত্যা, খুন, জখম করে যাচ্ছে।

শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে থানচি উপজেলার ইউনিয়নের নব নির্বাচিত জন প্রতিনিধিদের সাথে বান্দরবানস্থ নিজ বাসভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন ।

থানচি উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াই হ্লা মং এর সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র ইসলাম বেবী, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যসাপ্রু, মোজাম্মেল হক বাহাদুর প্রমুখ ।

তিনি আরো বলেন, আমরা বিভিন্ন ভাবে দেখেছি আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকে হত্যা করেছে, অনেক নেতার লাশও খুঁজে পায়নি। এমন পরিস্থিতি বিরাজ করছে যেন শেখ হাসিনার উন্নয়নকে ধ্বংস করার জন্য । শেখ হাসিনা যে শান্তি চুক্তি করেছে সেটাকে বাঁধাগ্রস্ত করার জন্য এরকম অনেক ঘটনা ঘটবে। আওয়ামী লীগের প্রত্যেক নেতা সংগঠনকে শক্তিশালী করুন।

যারা সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, উন্নয়নকে যারা বাঁধা দিতে চায় তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানান মন্ত্রী ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতাদের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, সুনেতৃত্ব দিতে পারলে সংগঠন এগিয়ে যাবে। সরকারের উন্নয়ন গ্রামে গঞ্জে পৌঁছাতে হলে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। প্রতিযোগিতা থাকবে কিন্তু প্রতিশোধ নয় । সংগঠনকে যারা নেতৃত্ব দিবেন তাদের বিচক্ষণ, দূরদৃষ্টিসম্পন্ন হতে হবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, একসময় বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলত, ভিক্ষুক জাতি বলত, আমাদেরকে বিশ্বের কাছে মাথা নত করাত । তারা আজকে প্রধানমন্ত্রীকে একজন বিশ্বের সুযোগ্য নেতা মনে করেন । তারা এখন বাংলাদেশকে রোল মডেল বলে । প্রধানমন্ত্রী সমৃদ্ধশালী যে বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছেন সেটি বাস্তবায়নের জন্য ওনার পাশে আমাদের থাকতে হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।