শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন কাপ্তাই তথ্য কর্মকর্তা মো: হারুন

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন কাপ্তাই তথ্য কর্মকর্তা মো: হারুন। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের তার কাজের সফলতার জন্য তিনি এই পুরস্কার লাভ করেন। সরকারি কর্মকর্তা- কর্মচারীদের শুদ্ধাচার চর্চায় উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে প্রতিবছর ” শুদ্ধাচার পুরস্কার ” প্রদান করা হয়। সারা বাংলাদেশের ৬৮ জন কর্মকর্তা হতে ৩ জন কর্মকর্তা এই শুদ্ধাচার পুরস্কার লাভ করেন। এদের চট্রগ্রাম বিভাগ হতে শুধুমাত্র তিনিই এই পুরস্কার লাভ করেন। এই ছাড়া এই অধিদপ্তরের ২ জন কর্মচারীও এই পুরস্কার অর্জন করেন।

কাপ্তাই তথ্য কর্মকর্তা মো: হারুন ২০১৩ সালের ২৪ মার্চ কাপ্তাইয়ে সহকারী তথ্য কর্মকর্তা হিসাবে যোগদান করেন। যোগদানের পর হতে একজন সৎ, কর্মঠ কর্মকর্তা হিসাবে তিনি সর্বমহলে প্রশংসিত হন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ১০ টি বিশেষ উদ্যোগ, সরকারের সাফল্য ও উন্নয়ন ভাবনা, সরকারের ভিশন ২০২১ এবং ভিশন ২০৪২, সরকারের এসডিজি বাস্তবায়ন, টেকসই সামাজিক উন্নয়ন অভীষ্ট্য লক্ষ্য সমুহ অর্জন উপলক্ষ্যে আলোচনা, উঠান বৈঠক, উন্মুক্ত বৈঠক, নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে ওরিয়েন্টশন কর্মশালা, মা ও শিশু স্বাস্থ্য, স্হানীয় ও জাতীয় প্রচার কার্যক্রম প্রভৃতি বিষয়ে তিনি কাপ্তাই, রাজস্হলী ও বিলাইছড়ি উপজেলায় তাঁর দপ্তরের কর্মচারীদের নিয়ে সফলতার সাথে কাজ করে আসছেন। তাঁর কাজের এই সফলতায় তিনি এই পুরস্কার অর্জন করেন।

কাপ্তাই তথ্য কর্মকর্তা মো: হারুন জানান, একজন সরকারি কর্মকর্তা হিসাবে সবসময় সেবক হিসাবে কাজ করে আসছি, পুরস্কার পাব এটা আমার জানা ছিলো না, পুরস্কার এর ব্যাপারটা উদ্ধর্ধন কর্তৃপক্ষের বিবেচনার বিষয়, আমি সবসময় সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করার চেষ্টা করে আসছি। আমি সকলের নিকট দোয়া প্রার্থী। তিনি জানান, করোনা ভাইরাস এর প্রকোপ করলে তাদেরকে সনদপত্র প্রদান করা হবে।

এই পুরস্কার অর্জনে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহমেদ রাসেল তাঁকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, কাপ্তাই তথ্য কর্মকর্তা সরকারি সিদ্বান্ত সমুহ বাস্তবায়নে সব সময় উপজেলা প্রশাসনকে সহায়তা করে আসছেন। তিনি একজন কর্মঠ কর্মকর্তা।

এদিকে তাঁর এই পুরস্কার অর্জনে কাপ্তাই প্রেস ক্লাব সভাপতি কবির হোসেন সাধারণ সম্পাদক ঝুলন দত্ত সহ কাপ্তাইয়ে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।।

আরও পড়ুন
Loading...