সকালে মানববন্ধন, দুপুরে জামিন সাংবাদিক ফজলে এলাহী’র

ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে গ্রেফতার রাঙামাটির সাংবাদিক ফজলে এলাহীর জামিন দিয়েছে রাঙামাটি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। এর আগে আজ বুধবার (৮ জুন) সকালে আদালতের পাশে জেলা প্রশাসনের সামনে মানববন্ধন করেছে সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের জনগণ। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করে রাঙামাটির কোতয়ালি থানা পুলিশ।

ফজলে এলাহী দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম ও পাহাড় টোয়েন্টিফোর ডটকম সম্পাদক। তিনি এনটিভি, কালেরকন্ঠ পত্রিকার রাঙামাটির প্রতিনিধি।

বুধবার দুপুরে রাঙামাটি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেট ফাতেমা বেগম মুক্তার আদালতে এলাহীকে হাজির করা হলে আদালত জামিন মঞ্জুর করে। একই সাথে আগামী ৭ দিনের মধ্যে চট্টগ্রামে সাইবার ট্রাইব্যুনালে হাজিরার নির্দেশ দেন।

এর আগে বুধবার সকালে সাড়ে ১০টার দিকে সাংবাদিক ফজলে এলাহীর মুক্তির দাবিতে জেলা প্রশাসনের সামনে মানববন্ধন করেছে সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের জনগণ। এসময় বক্তারা ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন বাতিলসহ সাংবাদিকদের হয়রানী ও ষড়যন্ত্রমূলক সকল মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

সাংবাদিক সুনীল কান্তি দের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি সুশীল প্রসাদ চাকমা, খাগড়াছড়ি জেলার সিনিয়র সাংবাদিক আবু দাউদ, বিএনপি নেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল, দুর্নিতী প্রতিরোধ কমিটির রাঙামাটি সাধারণ সম্পাদক ললিত চন্দ্র চাকমা প্রমূখ।
প্রসঙ্গত: গত বছরের ৩ ডিসেম্বর অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘পাহাড় টোয়েন্টি ফোর ডট কম’ এ প্রকাশিত ‘রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের ‘পাইরেটস’ বিড়ম্বনা’ শিরোনামে সংবাদের প্রতিবাদে রাঙামাটির কোতয়ালি থানায় গত ১২ ডিসেম্বর মানহানির অভিযোগ দায়ের করে রাঙামাটির সাবেক সংরক্ষিত সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু’র কন্যা নাজনীন আনোয়ার। পুলিশ অভিযোগ তদন্তের অনুমতি চাইলে আদালত সেই অনুমতি প্রদান করে। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম থেকে সাইবার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে একটি ওয়ারেন্ট ইস্যু করা হয়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।