সড়ক দখলমুক্ত ও ক্যাম্পাসে নিরাপত্তার দাবিতে খাগড়াছড়িতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

NewsDetails_01

খাগড়াছড়িতে শিক্ষার পরিবেশ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে সরকারি কলেজের পাশের সড়কে অবৈধ ভাবে পার্কিং করা যানবাহন নেয়া, কলেজ ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন দাবিতে রাস্তায় আন্দোলনে নেমেছে শিক্ষার্থীরা।

আজ মঙ্গলবার ১৭ অক্টোবর সকাল ১১টা থেকে শহরের চেঙ্গীস্কোয়ার হয়ে খাগড়াছড়ি গেইট এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করেছে, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা। তপ্তরোধে পুড়ে দুই ঘন্টারও বেশি সময় ধরে চলা মানববন্ধনে কলেজের সকল শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহন এবং বিভিন্ন দাবিতে শ্লোগানে শ্লোগানে উত্তপ্ত হয়ে উঠে খাগড়াছড়ি গেইট থেকে শুরু করে চেঙ্গীস্কোয়ার হয়ে পুরো কলেজ গেইট এলাকা।

শিক্ষার্থীরা বলেন, খাগড়াছড়িতে পর্যটক বাড়ার সাথে সাথে গাড়ির সংখ্যাও বেড়ে গেছে। গাড়িগুলো যত্রতত্র পার্কিং করে রাখা হচ্ছে। চেঙ্গীস্কোয়ার হয়ে সরকারি কলেজের সামনে থেকে শুরু করে শহরের প্রবেশ মুখের রাস্তার দুই পাশে সারিবদ্ধভাবে পার্কিং করায় ছাত্র-ছাত্রীসহ জনসাধারণের চলাফেরায় চরম অসুবিধা সৃষ্টি হচ্ছে। খাগড়াছড়ি গেইট হয়ে চেঙ্গীস্কোয়ার এলাকায় বাস শ্রমিকদের অসংযত চলাফেরা, কলেজ ক্যাম্পাসের ভিতর জোরপূর্ব প্রবেশ করে মাদক সেবন, কলেজমূখী হয়ে মলমূত্র ত্যাগ ও হৈ হুল্লুড়ে কলেজের শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।

খাগড়াছড়ি গেইট সংলগ্ন কলেজ গেইট দিয়ে মেয়ে শিক্ষার্থীরা চলাফেরা করার সময় প্রতিনিয়ত বাস শ্রমিকরা মেয়েদের প্রতি অশোভন আচরণ করে। বাস শ্রমিকরা কলেজের সামনে বাস রেখে তা পরিস্কার করার জন্য কলেজের ভেতর পুকুর থেকে পানি আনায়নের সময় ছাত্রীরা চরম অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়ে, ক্ষেত্র বিশেষে ইভটিজিং এরও শিকার হয় প্রতিনিয়ত। শহরের প্রবেশ মুখ চেঙ্গীস্কয়ার থেকে খাগড়াছড়ি গেইট পর্যন্ত বাস গাড়িগুলো পার্কিং করে রাখার ফলে বিকেলের পর থেকে সেখানে একটি ভৌতিক পরিবেশের সৃষ্টি হয়। কলেজের সামনে গাড়ি রেখে ধোয়া-মোছা করতে গিয়ে গাড়ির তেল-মোবিল ও নানা মানব বর্জ্য পদার্থে কলেজ আঙিনার পরিবেশ দূষণ হচ্ছে।

NewsDetails_03

অবিলম্ভে কলেজ গেইট হতে চেঙ্গস্কয়ার এবং চেঙ্গস্কয়ার হতে খাগড়াছড়ি গেইট পর্যন্ত পার্কিং করা যানবাহনসমূহ অন্যত্র সরানোর ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানানো হয়। অন্যথায় যে কোনো মূহুর্তে বড়ধরণে সড়ক দুর্ঘটনাসহ অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

এছাড়াও শহরের রাস্তার দুই পাশে জনসাধারণ চলাচলের জন্য নির্মিত ফুটপাত দখলমুক্ত, কলেজ ও স্কুল ছুটির পর বাড়ি পৌঁছানো পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সকল প্রকার নিরাপত্তা, সন্ধার পর শহরের বিভিন্ন অলিগলিতে মাদকাশক্তদের উৎপাত বন্ধে জরুরী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করাসহ বিভিন্ন দাবি দাওয়া লিখিত ভাবে নিয়ে শত শত ছাত্র-ছাত্রী বিক্ষোভ মিছিল করে জেলা প্রশাসক কার্যালয় গিয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন শিক্ষার্থীরা।

এবিষয়ে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা বিক্ষোভ বা মানববন্ধন করেছে কিনা তা জানিনা। তবে বিভিন্ন দাবিদাওয়া উপস্থাপন করে লিখিত ভাবে স্মারকলিপির একটি কপি কলেজ কতৃপক্ষকেও দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। তাদের যে দাবিদাওয়া তা খুবই যুক্তিসঙ্গত।

উল্ল্যেখ্য, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে উল্ল্যেখিত তাদের দাবি সমূখ পুরণ না হলে সড়ক অবরোধ ছাড়াও কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেয় শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন