সড়ক দুর্ঘটনায় আহতদের দেখতে গেলেন বীর বাহাদুর

NewsDetails_01

বান্দরবানের রুমা উপজেলার দার্জিলিং পাড়ায় পর্যটকবাহী একটি জীপ গাড়ি খাদে পড়ে দুই নারী পর্যটক নিহত হয়েছে, আর এই ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ১১ পর্যটক। এদিকে দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে শনিবার বিকালে সদর হাসপাতালে আহতদের দেখতে ছুটে যান বান্দরবান ৩০০ নং আসনের সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

এসময় সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি আহতদের উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করতে খোঁজখবর নেন এবং চিকিৎসকদের নির্দেশনা প্রদান করেন। এসময় জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন, সিভিল সার্জন ডা. মাহবুবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ফজলুর রহমান সহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আজ ২০ জানুয়ারী (শনিবার) ১১টায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিরা হলেন, ঢাকার বাসিন্দা ফিরোজা খাতুন (৫৩) ও জয়নব (২৪)। এই ঘটনায় আহত ১১জন হলেন, রাফান (১২), ঊষসী নাগ (১৫), ডা. জবা রায় (৪৫), মাহফফুা ইসলাম রুপা (৪৫), আমেনা বেগম (৬০), তাহমিনা তানজীম তালুকদার (১৯), তাননিম (২১) , রিজভী (৩৪), আঞ্জুমান হক (৩৫), ইতু (১৬) এবং স্বর্ণা (২৩)।
রুমা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ মাহবুবুল হক স্বাক্ষরিত সড়ক দূর্ঘটনা সংক্রান্ত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য নিশ্চিত হওয়া যায়।

সুত্রে জানা যায়, আহত ও নিহত পর্যটকেরা সবাই নারীর চোখে বিশ্ব দেখা ভ্রমণ সংগঠনের সদস্য। ৫৭ জনের দলটি ৫টি জীপ গাড়িতে করে ১৯ জানুয়ারী (শুক্রবার) বান্দরবানের কেওক্রাডং ভ্রমণ গিয়েছিল। ফেরার পথে (২০ জানুয়ারি) দুপুরে দুর্ঘটনায় পড়ে তাদের একটি গাড়ী।

NewsDetails_03

এদিকে দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে স্থানীয় জনসাধারণ, রুমা ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও সেনাবাহিনী ও উপজেলা প্রশাসনের সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে রুমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলে দুই পর্যটকের মৃত্যু ঘটে।

এদিকে রুমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিকৃত গুরুতর আহত ১১জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পরে দুপুর ১ টায় সেনাবাহিনীর এ্যাম্বুলেন্সে করে বান্দরবান হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে তার মধ্যে ৫ জনকে বিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। এদিকে ৬জন এখনো সদর হাসপাতালে জরুরী বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে এবং তাদের মধ্যে গুরুত্বর আহত আরো কয়েকজনকে চট্টগ্রাম পাঠানোর কথা জানান বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন দুর্ঘটনার সংবাদ নিশ্চিত করেছেন এবং তিনি জানান, ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা ৫৭জনের একটি টিম ৫টি জীপ গাড়ী নিয়ে ১৯ জানুয়ারী (শুক্রবার) সকালে রুমা উপজেলার বগালেক যায়। পরে তারা ২০ জানুয়ারী (শনিবার) বগালেক থেকে কেওক্রাডং ভ্রমন শেষে বান্দরবান সদরে ফেরার পথে বগালেক-কেওক্রাডং সড়কের দার্জিলিং পাড়ায় একটি জীপ গাড়ী দুর্ঘটনায় পতিত হয় এবং ঘটনাস্থলে ২ পর্যটক নিহত ও অন্যরা আহত হয়।

জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন আরো জানান, আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার পাশাপাশি নিহতদের মরদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে সন্ধ্যায় বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যায় পুলিশ।

আরও পড়ুন