সম্মেলন ঘিরে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় আ.লীগ

aaomilig20160918112038আসন্ন ২০তম জাতীয় সম্মেলন ঘিরে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বাড়াতে চায় ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। ‘সম্মেলনের অঙ্গীকার, রুখতে হবে জঙ্গিবাদ’ স্লোগানে অনুষ্ঠিত হবে দলটির এবারের সম্মেলন। সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত দলের অভ্যর্থনা উপ-পরিষদের একাধিক সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

অভ্যর্থনা উপ-পরিষদের সদস্যরা জানান, বিদেশি অতিথিদের তালিকা চূড়ান্ত করে আমন্ত্রণ জানানো শুরু হয়েছে। চীনের কমিউনিস্ট পার্টি, ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস, ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি), যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিকান, যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ এবং লেবার পার্টি এবং বিশ্বের কিছু প্রাচীন গণতান্ত্রিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্য গঠনের লক্ষ্য সার্কভুক্ত দেশসমূহের রাজনৈতিক দলগুলোকেও আমন্ত্রণ জানানোর পরিকল্পনা নিয়েছে আওয়ামী লীগ। নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপ-পরিষদের একজন সদস্য জানান, বিশ্বের প্রাচীন ও গণতান্ত্রিক দলগুলোকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও হাতেগোনা কয়েকটি দলের প্রতিনিধির উপস্থিতি নিশ্চিত করতে চায় তারা। চীনের কমিউনিস্ট পার্টি, ভারতীয় জনতা পার্টি ও ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের প্রতিনিধিদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে চেষ্টা চালানো হচ্ছে দলের পক্ষ থেকে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বাড়ানোর অংশ হিসেবে আগস্টে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদল মালায়েশিয়া, যুক্তরাজ্য, চীন, জাপানসহ বেশ কয়েকটি দেশ সফর করেছেন।

সূত্র জানিয়েছে, গত ২৩ থেকে ৩১ আগস্ট চীন সফর করে ১৪ দলের একটি প্রতিনিধিদল। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলটি চীনের ক্ষমতাসীন দলের উচ্চপদস্থ নেতৃবৃন্দ ও মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। প্রতিনিধিদলের কয়েক সদস্য জানান, বাংলাদেশে চীনের রাষ্ট্রপতির সফরের পূর্বে এটি গুরুত্বপূর্ণ সফর ছিল।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে শত্রুতা নয়’ পররাষ্ট্রনীতিতেই আমরা অটল আছি। শেখ হাসিনা সেই নীতি অনুসরণ করেই চলছেন। বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে কখনো কখনো কারও সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হতেই পারে তাই বলে এটা স্থায়ী হবে বিষয়টি এমন না। আমরা আমাদের কাজ করে যাচ্ছি।’ সূত্র : জাগোনিউজ

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।