সরকারি নির্দেশনা অমান্য : বান্দরবানে ইমামসহ ৫ জনকে জরিমানা

বান্দরবান সদর উপজেলার মেঘলাস্থ লাল মোহন বাহাদুর জামে মসজিদে পাঁচ জনের অধিক মুসল্লি নিয়ে নামাজ পরিচালনা করার কারনে ইমামসহ ৫ জনকে ছয় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার জেলা সদরের লাল মোহন বাহাদুর জামে মসজিদে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে বান্দরবানের জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম সরকারী কাজে মেঘলা পর্যটন কেন্দ্রের ২য় গেইটের চলমান কাজ দেখতে যান। এসময় তিনি গাড়ি করে বান্দরবান শহরে ফেরার পথে রাস্তার পাশে অবস্থিত লাল মোহন বাহাদুর জামে মসজিদে নেমে যান এবং মসজিদে ব্যাপক লোক সমাগম দেখেন। এসময় তিনি ইমামের কাছে এত ব্যক্তি নিয়ে নামাজ পড়ার কারণ জানতে চান।

এর জবাবে ইমাম কোন সুদুত্তর দিতে না পারলে পরে জেলা প্রশাসক উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ডেকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা আদায় করার নির্দেশ দেন। পরে পাঁচ জনের বেশি মুসল্লি নিয়ে নামাজ আদায় করায় ইমামসহ পাঁচজনের কাছ থেকে ছয় হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মসজিদের মুসল্লিদের একজন জাহাঙ্গির আলম জানান, প্রথমে আমরাসহ তিন জন
মুসল্লি ইমামের পেছনে জোহরের নামাজে জামাতে দাঁড়ায়। পরে পেছনে আরও কয়েকজন

জামাতে শরিক হন। নামাজ শেষ করার সঙ্গে সঙ্গে হঠাৎ জেলা প্রশাসক দাউদুল
ইসলাম মসজিদে প্রবেশ করে বেশি মুসল্লি দেখে জেলা প্রশাসক উপজেলা নির্বাহী
অফিসারকে ডেকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা আদায় করার নির্দেশ দেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. হাবিবুল হাসান মসজিদের ইমাম মো. আব্দুল খালেককে দুই হাজার টাকা এবং চার মুসল্লির প্রত্যোকের কাছ থেকে এক হাজার করে চার হাজার, সর্বমোট ছয় হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. হাবিবুল হাসান জানান, এই সংকটময় পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বেশি মুসল্লি নিয়ে নামাজ পড়ছিলেন মসজিদের ইমাম, তাই তাদের জরিমানা আদায় করা হয়।

আরও পড়ুন
Loading...