সীমান্তে সরিয়ে নেওয়া হলো এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র

NewsDetails_01

মিয়ানমার সীমান্তের সংঘাত পূর্ন পরিস্থিতি বিবেচনায় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

মিয়ানমারের বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মির সঙ্গে বিজিপির সংঘর্ষ শুরু হয়। যার প্রভাব পড়ে বান্দরবান ও কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী এলাকায়। মিয়ানমার থেকে ছোড়া মর্টার শেলের আঘাতে বাংলাদেশিসহ ২ জন নিহত হন। আহত হন বেশ কয়েকজন। মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা সীমান্তরক্ষীসহ ৩৩০ জনকে আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ।

সীমান্তবর্তী ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার ভেন্যু ছিল। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য ওই ভেন্যুর পরিবর্তে ১ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

যেসব এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয়ে ছিল, তাদের পরীক্ষা হবে ১ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে।

আজ সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর এ এম এম মুজিবুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, মিয়ানমারে অভ্যন্তরীণ সংঘর্ষের কারণে সীমান্তবর্তী কেন্দ্রটি ঝুঁকিপূর্ণ। তাই ভেন্যু পরিবর্তন করা হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি নিয়ে ১ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২ নম্বর উত্তর ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্র করা হয়েছে।

NewsDetails_03

উল্লেখ্য, ২০২২ সালে এসএসসি পরীক্ষার সময়ও সীমান্তে সংঘর্ষ হয়। সে সময় কেন্দ্রটি কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে স্থানান্তর করা হয়েছিল

এদিকে আজ সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বান্দরবানের ঘুমধুম ও তুমব্রু সীমান্ত এলাকা পরিদর্শন করেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ তোফায়েল ইসলাম।

এসময় বিভাগীয় কমিশনার বলেন, সীমান্ত পরিস্থিতির কারণে ঘুমধুম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র টি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া আগামী ২/১দিনের মধ্যেই বাংলাদেশে আশ্রিত মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশের সদস্যদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে।

এসময় তার সাথে চট্টগ্রামের পুলিশের ডিআইজি মোহাম্মদ নূরে আলম মিনা, কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোঃ মাহফুজ ইসলাম, ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আজিজ সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিভাগীয় কমিশনার ও ডিআইজি সীমান্ত এলাকা ও ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শন কালে চট্টগ্রামে ডিআইজি নূরে আলম মিনা জানিয়েছেন, সীমান্ত পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে। তবে সীমান্তে যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে এজন্য পুলিশ কাজ করছে।

এদিকে বান্দরবান সীমান্তে কোন গোলাগুলি না হওয়ায় পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। তবে লোকজনদের জিরো লাইনের কাছে না যেতে নির্দেশনা দিয়েছে বিজিবি।

আরও পড়ুন