স্কুলছাত্রী কৃত্তিকা ত্রিপুরার পরিবারের পাশে দাঁড়ালো খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

কৃত্তিকার বিধবার মায়ের হাতে এসময় নগদ অর্থ তুলে দেন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান
ধর্ষণের পর নির্মমভাবে হত্যার শিকার দীঘিনালার স্কুলছাত্রী কৃত্তিকা ত্রিপুরার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। গতকাল পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী সরেজমিনে দীঘিনালা উপজেলার নয়মাইলস্থ চন্দ্র কিরণ কার্বারী পাড়ায় কৃত্তিকাদের বাড়িতে উপস্থিত হন। তিনি কৃত্তিকার মা শোকাহত অনুমতি ত্রিপুরাকে সমবেদনা জানিয়ে বলেন, কৃত্তিকার ওপর যা ঘটেছে তা বর্বরতম অমানবিক অপরাধ। অপরাধীদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় কঠিন শাস্তি প্রদানে প্রশাসন দ্রুত গতিতে কাজ করছে।
তিনি কৃত্তিকার বিধবার মায়ের হাতে এসময় নগদ ৫০ হাজার টাকা তুলে দিয়ে বলেন, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ আপনার পরিবারের পাশে সবসময় থাকবে। কৃত্তিকা আর ফিরে আসবে না। তার স্মৃতি রক্ষার্থেও তার বিদ্যালয়ে উদ্যোগ নেয়া হবে। স্মৃতিচিহ্নের মাধ্যমে তার সহপাঠীরা এ ধরনের জঘন্যতম অপারাধের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রেরণা পাবে।
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে এসময় বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের কেন্দ্রীয় সভাপতি নলেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা পরিষদ সদস্য শতরুপা চাকমা, জুয়েল ত্রিপুরা এবং জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি টেকো চাকমা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Priotosh Barua বলেছেন

    টাকা পয়সা দিয়ে কি হবে?
    যার চলে যাই সেই তো বুঝে?
    চোখ ভরা ঘুম মন ভরা হাসি সবই তো শেষ আর কি আছে?
    তার পরেও কোন বিচার নেই আজ আমরা অসহায় বলে?

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।