সড়কে লক্কর ঝক্কর বাস চায় না রাঙ্গামাটির যাত্রীরা

৫০ বছর ধরে জিম্মি হয়ে থাকা চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মোটর মালিক সমিতি নামক রাউজান সমিতির কাছ থেকে মুক্তি পেতে চায় রাঙ্গামাটির স্থানীয় জনগণ। পাশাপাশি, পর্যটন শহর রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়কে চলাচলকারী লক্কর ঝক্কর, ফিটনেসবিহীন গাড়ি তুলে দিয়ে সর্বোচ্চ যাত্রীসেবা ও উন্নত বাস সার্ভিস চালুর দাবি জানানো হয়েছে।

শনিবার (০৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে সংবাদের সন্মেলনে ‘রাঙ্গামাটি যাত্রী কল্যাণ সমিতি’ নামের একটি সংগঠন এসব দাবি তুলে ধরেন।

সংগঠনটির নেতারা বলেন, রাঙ্গামাটির মানুষ পরিবহন সেক্টরে গত ৫০বছর ধরে একটি জিম্মি অবস্থায় আছে। চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মোটর মালিক সমিতির নামে মুলত রাউজানের প্রভাবশালী একটি চক্রের কাছে জিম্মি হয়েছে আছে। নিজেদের প্রভাব প্রতিপত্তি খাটিয়ে এ সড়কের যাত্রী সাধারণকে ঠকিয়ে আসছে তারা।

নেতারা জানান, অনেক পরিবহণ মালিক এ সড়কে বিলাসবহুল পরিবহণ নামাতে চাইলেও চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মোটর মালিক সমিতির বাঁধার কারণে তা আর সম্ভবপর হচ্ছে না। এছাড়াও, এ চক্রটি ক্ষমতার অপব্যবহার, চাঁদাবাজি, অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের মত নানা অপকর্ম চালিয়ে আসছে বছরের পর বছর।

নেতারা আরো বলেন,আমরা বহুবার চেষ্টা করেছি তাদের সাথে কথা বলে উন্নত সার্ভিসের বিষয়ে কিন্তু তারা করবে করবে বলে যাত্রী সাধারণকে ঠকিয়ে আসছে। এ জিম্মি দশা থেকে মুুক্তি পাওয়ার প্রতিবাদে গত কয়েকদিন আগে পাহাড়িকা বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় স্থানীয়রা। এতেও ঠনক নড়েনি ঐ মহলের। তাই রাঙ্গামাটি যাত্রী কল্যাণ সমিতির নেতাারা দাবি আদায়ে চুড়ান্ত আন্দোলনে যাওয়ার হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

সংবাদ সন্মেলনে সংগঠনটির আহবায়ক আনোয়ার মিয়া বানুর সভাপতিত্বে উপদেষ্টা একেএম মকসুদ আহম্মেদ, জহির আহমেদ, সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম মুন্না, রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল,সাধারন সম্পাদক আনোয়ার আল হক প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।