২৪ জানুয়ারীর সম্মেলনকে কেন্দ্র করে উজ্জীবিত লামা ছাত্রলীগ

দুই পদে প্রার্থী ১৬জন

স্বাস্থ্য বিধি মেনে ২৪ জানুয়ারি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ লামা উপজেলা শাখার সম্মেলন। একইদিনে অনুষ্ঠিত হবে পৌর শহর শাখা ও সরকারী মাতামুহুরী কলেজ ছাত্রলীগের সম্মেলন। এ উপলক্ষে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মংক্যহ্লা মার্মাকে আহবায়ক এবং সাধারণ সম্পাদক মো. শাহীনকে সদস্য সচিব করে ইতিমধ্যে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি সম্মেলন প্রস্তুত কমিটিও গঠন করা হয়।

বান্দরবানের লামা উপজেলার স্থানীয় বাস টার্মিনালে অনুষ্ঠিতব্য ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্যশৈহ্লা। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মো. রাকিব হোসেন সম্মেলন উদ্বোধন করবেন। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. কাউছার সোহাগ। স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় কালে এসব তথ্য জানান, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব মো. শাহীন। এ সময় কমিটির আহবায়ক মংক্যহ্লা মার্মাসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সম্মেলনে উপজেলা শাখায় সভাপতি পদে ৫জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন ৩জন। পৌর শাখার সভাপতি পদে ২ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন ৩জন। মাতামুহুরী কলেজ শাখায় সভাপতি পদে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় সালাউদ্দিন ভুইয়া নাহিদ ও সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন ২জন।

এদিকে সম্মেলনকে ঘিরে তীব্র শীত উপেক্ষা করে প্রার্থীদের প্রচার প্রচরনা বেশ জমে উঠেছে। দিন রাত ভোটারের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন প্রাথীরা। ভোটারেরাও নানা হিসেব নিকেশ কষছেন বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন ছাত্রলীগের নেতৃত্ব কাদের হাতে তোলে দিবেন।

সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি সুত্রে জানা যায়, সম্মেলনের দিন ধার্য্যের পর ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্যদিয়ে প্রার্থীরা নমিনেশন ফরম সংগ্রহ করতে শুরু করেন উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ছাত্রলীগের সম্মেলন সম্পর্ন করার লক্ষে ৫ ও ৬ জানুয়ারী নমিনেশন ফরম বিক্রি করা হয়। ১০ জানুয়ারী ফরম জমা ও ১১ জানুয়ারী যাচাই বাছাই করা হয়। ১৩ জানুয়ারী প্রত্যাহার ও চুড়ান্ত প্রার্থী ঘোষনা করা হয় ১৪ জানুয়ারি।

যাচাই বাছাই শেষে উপজেলা শাখায় সভাপতি পদে মো. শামিম মিয়া, মো, শহিদুল ইসলাম সাদ্দাম, মো. সাদ্দাম হোসেন রাকিব, বিপ্লবনাথ, এখ্যাইমং মার্মা। সাধারণ সম্পাদক পদে রুবেল হাসান, সজীব মল্লিক ও মেহেদী হাসান রনি। পৌর শাখার সভাপতি পদে মো. রহিম উদ্দিন রাজু গাজী ও সুমন মাহম্মদ। সাধারণ সম্পাদক পদে মহীন উদ্দিন শাওন, মো. ইকবাল হোসেন ইমন ও ফখরুল ইসলাম হেলাল। কলেজ শাখায় সভাপতি পদে সালাউদ্দিন ভুঁইয়া নাহিদ, তার কোন প্রতিদ্বন্ধি নেই। এখানে সাধারণ সম্পাদক পদে মো. খাইরুল ইসলাম বাপ্পি ও আরিফুল হকের প্রার্থীতা চুড়ান্ত করা হয়। সম্মেলনে উপজেলা শাখায় ১৬১জন, পৌর শাখায় ১৭১জন ও কলেজ শাখায় ৭১জন ভোটার রয়েছে।

এ বিষয়ে লামা পৌর শহর শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী সুমন মাহম্মদ বলেন, ২০১৭ সালে পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ার পর ৯টি ওয়ার্ডসহ লাইনঝিরি মাদ্রাসা ছাত্রলীগের কমিটি করেছি। এছাড়া বান্দরবান জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্দেশে জাতীয় সংসদ নির্বাচন, উপজেলা নির্বাচন, পৌরসভার নির্বাচন ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নেতাকর্মীদের নিয়ে আন্তরিকতার সাথে কাজ করি। প্রতি বছর ২টি হাই স্কুল, ১টি মাদ্রাসা, ১টি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ হলি চাইল্ড পাবলিক স্কুলে এস এস সি পরীক্ষার্থীদের মাঝে পরীক্ষা সামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি করোনা কালিন পৌর ছাত্রলীগের নেতাকর্মী এবং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা প্রতিটা ওয়ার্ডে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাই আশা করছি ছাত্র ভোটাররা আমাকে ভোট দিয়ে সভাপতি নির্বাচিত করবেন।

এদিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হলে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনীর উপর উদ্বুদ্ধ করে এবং পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপির বান্দরবান উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য ও আগামী সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে কাজ করে যাবেন বলে জানান প্রার্থী মো.শামিম মিয়া।

ভোটাররা বলছেন, যিনি ছাত্র অধিকার আদায়, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করবেন এবং যাকে সুখে দু:খে পাবো তাকেই ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবো।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।