২৫০ শয্যায় উন্নীত হচ্ছে বান্দরবান হাসপাতাল

বান্দরবান হাসপাতাল এর নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি
বান্দরবানে ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে বান্দরবান সদর হাসপাতালকে ১০০ শয্যা থেকে ২৫০ শয্যায় রুপান্তরের লক্ষে ৮ তলা বিশিষ্ট হাসপাতাল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। এসময় তিনি বলেন, সারাদেশের সাথে পার্বত্য অঞ্চলের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই। চিকিৎসা ব্যবস্থা এই সরকারের আমলে ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে। বান্দরবানে নতুন নতুন কমিউনিটি ক্লিনিক ছাড়াও নার্সিং ট্রেনিং ইনস্টিটিউট হচ্ছে। জেলা হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে।
আজ মঙ্গলবার সকালে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ২৫০ শয্যার হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন। বান্দরবান সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডাঃ ক্য থোয়াই প্রু প্রিন্স এর সঞ্চালনায় এসময় তার সাথে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার, সিভিল সার্জন ডা. অং সুই প্রু মারমা,গণপূর্ত বিভাগের তত্ত্ববধায়ক প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যসা প্রু, সদস্য লক্ষীপদ দাশ, সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সদস্য ম্রাসা খেয়াং, সদস্য ফিলিপ ত্রিপুরা, সদস্য তিংতিং ম্যা মারমা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল কুদ্দুছ, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি অমল কান্তি দাশ, ৩নং ওয়ার্ড পৌর কাউন্সিলর অজিত কান্তি দাশ, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মাজেদুল ইসলামসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৯ সালে ৫০শয্যার বান্দরবান সদর হাসপাতাল ২০০১ সালে এসে ১শ শয্যায় উন্নীত হয়। বান্দরবান জেলার সবচেয়ে বড় এই হাসপাতালটি এখন আড়াইশ শয্যায় উন্নীত হচ্ছে। দুর্গম ৭ উপজেলার মানুষের উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে এই হাসপাতালটি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।