কাপ্তাইয়ের কেপিএম গ্যাস লাইন বিষ্ফোরণ: উৎপাদন বন্ধ

রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনাস্থ কর্ণফুলী পেপার মিলস লি. (কেপিএম) এর পাওয়ার হাউজ সংলগ্ন গ্যাস পরিবহণ ফাইপ বিষ্ফোরণ হয়ে আজ বৃহস্পতিবার থেকে মিলটির উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। তবে ভোর ৫টায় সংঘটিত হওয়া এই দূর্ঘটনাটিতে আগুন লাগা সহ কোন আহত, নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেনি বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
বিষ্ফোরণের সাথে সাথে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দূর্ঘটনা এড়াতে সক্ষম হয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এদিকে এই ঘটনায় উৎপাদনের পাশাপাশি সমগ্র এলাকায় বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। তবে সন্ধ্যায় ৬ টার কিছু সময় আগে এলাকায় বিদ্যু সরবরাহ করা হয়।
কেপিএম ব্যবস্তাপনা সুত্রে জানা যায়, কেপিএমে নিজস্ব টারবাইন দিয়ে এতদিন উৎপাদন করা হয়েছে বিদ্যুৎ। বিদ্যুৎ উৎপাদনের টারবাইনের সাথে যে গ্যাস ফাইপ লাইনের সংযোগ রয়েছে তা দীর্ঘদিন যাবত ব্যবহৃত হয়ে বর্তমানে খুবই জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। লাইনটি জরাজীর্ণ হয়ে যে কোন মুহুর্তে বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশঙ্কা করার উপক্রমে পরিণত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টায় কেপিএমের পাওয়ার হাউজ সংলগ্ন লাইনটি হঠাৎ বিষ্ফোরিত হয়। কেপিএমের টারবাইনের সাথে ফাইপ লাইনটি সংযুক্ত থাকায় বিষ্ফোরণ হওয়ায় বর্তমানে কেপিএমের উৎপাদন স্থগিত হয়ে পড়েছে। বন্ধ রয়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদন। ফলে বিদ্যুৎ না থাকায় বন্ধ রয়েছে সমগ্র এলাকায় পানি সরবরাহ। এদিকে বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাস বন্ধ থাকায় এলাকায় দূর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী।
জানা যায়, গ্যাসের সাহায্যে কেপিএমের বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়। আর বিদ্যুৎ না থাকলে পানি সরবরাহ করা অসম্ভব হয়ে উঠে। পানি, বিদ্যুৎ আর গ্যাসের সমন্নয়নে মিলসটি উৎপাদন সচল থাকে।
এদিকে কেপিএমের সিবিএ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, উৎপাদন বহাল রাখতে ইতিমধ্যে গ্যাসের লাইন সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। দ্রুত লাইন সংস্কার করে উপাৎদন অব্যাহত রাখা হবে। এলাকায় পুরাদমে সরবরাহ করা হবে পানি, বিদ্যুৎ আর গ্যাস। এ বিষয়ে জানতে চেয়ে কেপিএম এমডি ডা. এম.এম.এ কাদেরকে কয়েকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।