ক্রেতা নেই বৃক্ষমেলায় !

বান্দরবানে বৃক্ষমেলায় ক্রেতার ভীড় নেই । সকাল থেকে অলস সময় কাটাচ্ছেন মেলায় আসা নার্সারির মালিক ও কর্মচারিরা । এবারের মেলায় সরকারি-বেসরকারি ১২টি নার্সারি অংশ নিয়েছে ।

কথা হয় চট্টগ্রামের ফতেয়াবাদ নার্সারীর মালিক মো:কামালের সাথে । তিনি জানান, আমার স্টলে বনজ, ফলজ ও ওষধি বিভিন্ন চারা রয়েছে । কিন্তু সকাল থেকে ক্রেতার দেখা নেই । এবার লোকসান গুণতে হবে ।

মেলায় স্টল দেয়া বালাঘাটা শ্রমিক কল্যাণ নার্সারীর কর্ণাধার মো:মহিউদ্দিন জানান, বেচাকেনা কম। আমরা পাঁচজন এসেছি । দৈনিক তিন থেকে চার হাজার টাকা খরচ । কিন্তু চারা গাছের বিক্রি নেই একহাজার টাকার।

তবে মেলায় স্টল দেয়া অনেক ব্যবসায়ী জানান, গত বারের মত এবার মেলা নিয়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালানো হয়নি । তাছাড়া বৃষ্টি পড়ছে অনেক বেশি । এই দুই কারণে বৃক্ষ মেলায় ক্রেতা কমে গেছে । তবে ছুটির দিন বিকেল থেকে ক্রেতার ভীড় দেখা গেলেও অন্যান্য দিন পুরোটাই ফাঁকা থাকে ।

বৃক্ষমেলার প্রচারণার কম হয়েছে এমন অভিযোগ মানতে রাজি নন বান্দরবান বন বিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা বজ্রগোপাল রাজবংশী । তিনি জানান, মিটিং এর সিদ্ধান্ত মতে জেলা তথ্য অফিস ৩ বার মাইকিং করছে । আর আমরা ব্যক্তিগতভাবে ২ বার মাইকিং করছি। এছাড়াও গত বারের তুলনাই এবার মেলাতে ২টি স্টল বেশি আছে । তাই প্রচার প্রচারণায় আমাদের কোন ঘাটতি ছিলনা।

তবে বান্দরবানের বৃক্ষমেলায় আসা নার্সারিতেগুলোতে বিক্রির জন্য রাখা হয়েছে, করচ, নাগ লিঙ্গম, হৈমন্তি, ধারমারা, গুটগুইট্ট্যাসহ নানা প্রজাতির দেশীয় প্রজাতির কগাছ। আর ফুল গাছের সংগ্রহে আছে, গোলাপ, রঙ্গন, কামিনী, বেলী, জুই, নয়ন তারা, টগর ইত্যাদি। এছাড়াও বিভিন্ন প্রজাতির ওষধি গাছের দেখা মিলছে নার্সারিগুলোতে ।

১৮ জুলাই থেকে শুরু হওয়া এই মেলা শেষ হবে আগামী ২৫ জুলাই ।জেলা প্রশাসন,কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও বন বিভাগের যৌথ আয়োজনে সপ্তাহব্যাপী বান্দরবান কালেক্টরেট প্রাঙ্গণে এই মেলার আয়োজন করা হয় ।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Nurul Hoque বলেছেন

    মনে হয় চড়া দাম৷

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।