খাগড়াছড়িতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক কারাগারে

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি নুরুল আজমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার(১৪ জানুয়ারী) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
এরআগে, দুপুরে সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ের নিচ থেকে তাকে আটক করা হয়।
খাগড়াছড়ির সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রওনক আলম বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকার আপত্তিকর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারের অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৯ ও ৩১ ধারায় দায়ের করা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সেঁজুতি জান্নাতের আদালতে তাকে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক বায়েছ ইসলাম ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। আদালত রিমান্ড শুনানী না করে সাংবাদিক নুরুল আজমকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।
সাংবাদিক নুরুল আজমের স্ত্রী ফারজানা আজম জানান, পূর্ব শত্রæতার জেরে সাংবাদিক জীতেন বড়–য়া তার স্ত্রীকে দিয়ে হয়রানি করার লক্ষ্যে অভিযোগ দায়ের করেছে। আমরা পরিবারের পক্ষ থেকে এঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি।
খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি সৈকত দেওয়ান এবং সাধারণ সম্পাদক কানন আচার্য এঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, মামলা দায়ের মাত্র আধঘন্টার মধ্যে কোন প্রকার তদন্ত ছাড়া অফিসের সামনে থেকে জোরপূর্বক তুলে নেওয়ার ঘটনায় সাংবাদিকরা শঙ্কিত। আমরা প্রধানমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রীর কাছে এঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানায়।
নুরুল আজম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ও এসএটিভি’র খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।