পার্বত্য শান্তি চুক্তির প্রতিটি শর্ত পূরণ হবে : ওবায়দুল কাদের

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তির প্রতিটি শর্ত শেখ হাসিনার সরকার অক্ষরে অক্ষরে পূরণ করবে। আজ মঙ্গলবার (২৪ মে) সকাল ১১টার দিকে জেলা আওমায়ী লীগের সম্মেলনে অনলাইনে ঢাকা থেকে সংযুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ১৩ বছর ক্ষমতায় রয়েছে। ১৩ বছর আগের রাঙামাটি, বান্দরবান, খাগড়াছড়ির সঙ্গে আজকের এ তিন জেলার অনেক পার্থক্য। এ তিন জেলার অনেক উন্নয়নে হয়েছে, অনেক পরিবর্তন এসেছে।

আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি যতবার ক্ষমতায় এসেছে, প্রত্যেক বার তাদের টেনে- হিঁচড়ে নামাতে হয়েছে।

রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদারের সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, বিশেষ অতিথি ছিলেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ওয়াসিকা আয়েশা খান এমপি, দলের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী।

এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম ঊন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, বিএনপি এখন সারা দিন বাংলাদেশ শ্রীলংকা হবে বলে যাচ্ছে।

দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা কখনও শ্রীলংকার মতো হবে না। বাংলাদেশ আফগানিস্তান, পাকিস্তানও হবে না। দেশের অর্থনীতির ভিত্তি জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যথেষ্ট শক্তিশালী, সেটা প্রমাণিত হয়েছে।
রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ দেখা গেছে।

১০ বছর পর আজ রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল হচ্ছে। কাউন্সিল ঘিরে নেতৃত্বে কারা আসছে তা নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে আলোচনা আছে। ১৯৯৬ সাল থেকে টানা ২৬ বছর ধরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্বে আছেন দীপংকর তালুকদার।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।