পাহাড়ের সেই ভয়ংকর শিক্ষক সোহেল রানা গ্রেফতার

খাগড়াছড়ি সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে করা মামলায় পাহাড়ের সেই ভয়ংকর শিক্ষক সোহেল রানাকে গ্রেফতারের পর কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

আজ (৪ মার্চ) বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ির চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জিল্লুর রহমানের আদালতে অভিযুক্ত শিক্ষককে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরন করেন।

পুলিশ জানায়,খাগড়াছড়ি সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে গত ২৫ ফেব্রুয়ারী কক্ষে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করেন ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক সোহেল রানা। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা গত ২ মার্চ খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলা দায়ের করলে গত বুধবার রাতে ঢাকার আগারগাওঁ এলাকা থেকে অভিযুক্ত সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মুহম্মদ রশীদ জানান, তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে ধর্ষণ চেষ্টার মামলায় অভিযুক্ত আসামীকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত শেষে দ্রুত এ মামলার প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি দুপুরে ওই ছাত্রীকে অভিযুক্ত শিক্ষক সোহেল রানা অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে যৌন নীপিড়ন ও ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ ঘটনায় ২৮ ফেব্রুয়ারি লিখিত অভিযোগ করার পর কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে গত ১ মার্চ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে সোহেল রানা ২০০৬ সালের ১৩ মে থেকে ২০১১ সালের ১১ আগস্ট পর্যন্ত রানা কুষ্টিয়ার দৌলতপুর হোসনেবাদ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের(টিএসসি) বিল্ডিং ট্রেড বিভাগের জুনিয়র ইন্সট্রাকটর থাকা কালে ছাত্রীদের অনৈতিক প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগে ২২জন শিক্ষক তার বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহন করলে তাকে লক্ষিপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে বদলি করা হয়, এর পর সেখান থেকে তিনি খাগড়াছড়ি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে যোগ দেন।

প্রসঙ্গত, গত ২ মার্চ পাহাড়ের অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল পাহাড়বার্তা “পাহাড়ের ভয়ংকর শিক্ষক সোহেল রানা!” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।