প্রশাসন যৌথ অভিযান চালাচ্ছে, বিষয়টি সংসদ সদস্যকে অবহিত করার প্রয়োজন মনে করেনা : উষাতন তালুকদার এমপি

রাঙামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ’র ২৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ছাত্র জনসমাবেশে উষাতন তালুকদার এমপিসহ অতিথিবৃন্দ
শক্তিমান চাকমা নিহতের জের ধরে যৌথ অভিযান চালাচ্ছে ভাল কথা, কিন্ত প্রশাসন বিষয়টি আঞ্চলিক পরিষদ তথা সংসদ সদস্য ও জন প্রতিনিধিকে অবহিত করার প্রয়োজন মনে করেনা বলে অভিযোগ করেছেন রাঙামাটির সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার। তিনি বলেন, সরকার পাহাড়ে অস্ত্র উদ্ধারের অভিযান চালানো হচ্ছে সেটি সমগ্র আদিবাসীদের জন্য মঙ্গলময়। আজ রবিবার পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যেগে রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট মাঠ প্রাঙ্গনে ২৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ছাত্র জনসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সমাবশে এমপি বলেন, ছাত্র সমাজকে আরো শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। শিক্ষাকে গুরুত্ব দিতে হবে। শুধু কোটার আশায় থাকলে হবে না। এখন সকলকে শিক্ষার দিক দিয়ে অগ্রসর হতে হবে। শিক্ষার পাশাপাশি নিজেদের অধিকারের জন্যও সচেষ্ট হতে হবে। কেননা অধিকার কেউ সহজে দিতে চাই না নিজের অধিকার নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।
“জুম্ম স্বার্থ পরিপন্থী,প্রতিক্রিয়াশীল ও চুক্তিবিরোধী সকল কার্যক্রম প্রতিহত করুন ,পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়নে ছাত্র সমাজে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলুন” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের ২৯ ৩ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে রাঙামাটিতে আয়োজিত ছাত্র জসমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি জুয়েল চাকমা। এছাড়া বিশেষ সমাবশে বিশেষ বক্তা হিসেবে ছিলেন, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী’র সভাপতি ফারুক আহমেদ রুবেল, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন’র সাংগঠনিক সম্পাদক বাপ্পাদীপ্ত বসু, সাংবাদিক নজরুল কবীর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মহিউদ্দিন মাহিম হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি মনিরা ত্রিপুরা. পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অরুণ ত্রিপুরা উপস্থিত ছিলেন ।
পার্বত্য চুক্তি বিষয়ে উষাতন তালুকদার বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সবার গর্ব। বাংলাদেশে প্রথম একমাত্র স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু -১ আমাদের দেশকে উন্নয়নশীল দেশে পরিনত করেছে। তিনি বলেন,শেখ হাসিনার পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে স্বদিচ্ছা থাকলেও পাহাড়ের কিছু ষড়যন্ত্রকারীদের ষড়যন্ত্রমূলক পরিকল্পনার কারনে তা হচ্ছে না। তবে আমরা জানি আওয়ামীলীগ সরকার সচেতন হলেই চুক্তি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।
তিনি আরো বলেন, পাহাড়ে অতি সহজে গোলাযোগ সৃষ্টি হয়না। পাহাড়ের শান্ত পরিস্থিতিকে কিছু মহল অশান্তিতে পরিনত করে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। সেজন্য ষড়যন্ত্রের বেড়াজাল থেকে বাহির হয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে হানা-হানি,মারা-মারি বন্ধ করে পাহাড়ি-বাঙালী সবাইকে মিলে-মিশে থাকার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক তালিকা প্রনয়ণ করা দরকার। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের সুষ্ঠ তালিকা প্রনয়ন হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন এমপি।
দু’দিন ব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে আজ সোমবার (২১শে মে ) অনুষ্ঠিত হবে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ’র ২৩ তম কেন্দ্রীয় কাউন্সিল।

আরও পড়ুন
4 মন্তব্য
  1. MD Jafar Alam বলেছেন

    কেনো তুমি কি সন্ত্রীদের বলে দিবা নাকি যে আর্মি আসবে তাই তোমরা অস্ত্র লুকিয়ে রাখ,

  2. MD Furkan Hossain Munna বলেছেন

    অবৈধ অস্ত্রের এম‌পি।

  3. Farid Uddin Bhuiyan বলেছেন

    বাঃ কী চমৎকার কথা!!! তাদেরকে জানিয়ে অভিযান।

  4. Zonayed Hasan বলেছেন

    ওমা এইটা আবার কি কথা

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।