বান্দরবানে অসহায় রোগীর পাশে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর সহধর্মিনী মে হ্লা প্রু

বান্দরবানের অসহায় রোগীর পাশে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর সহধর্মিনী মে হ্লা প্রু
বান্দরবান পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড জেল খানা এলাকার বেবী দে (৫০) নামের এক অসহায় মহিলার অসুস্থতার খবর পেয়ে ছুটে যান পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি’র সহধর্মিনী মে হ্লা প্রু।
আজ বরিবার বিকালে বান্দরবান পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড জেল খানা এলাকায় উপস্থিত হয়ে অসহায় রোগী বেবী দের শারিরীক অবস্থার দেখা শুনা করেন এবং তার চিকিৎসার জন্য নগদ ১০ হাজার টাকা প্রদান করেন। এসময় জেল খানা এলাকায় বিভিন্ন অলিও গলিতে পরির্দশন করে মানুষের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের কথা শুনেন এবং এলাকা বিভিন্ন অসহায় অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ প্রদান করেন।
বান্দরবান পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড জেল খানা এলাকার বেবী দের স্বামী কার্তিক দে বলেন, আমি একজন দিনমজুর আমার স্ত্রী খুবই অসুস্থ আজ অনেক দিন যাবৎ। আজ আমার বাসায় পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর মহোদয়ের সহধর্মিনী এসে আমার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য অনেক গুলো টাকা দিয়েছেন। আজকে আমি সত্যি খুশিতে আত্মহারা হয়ে কথা বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। এতোদিন আমি সারাদিন কাজ করে বাসায় আসার আগে চিন্তা করতাম কিভাবে চিকিৎসা হবে আমার স্ত্রীর। আজ সত্যি আমি মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞা প্রকাশ করছি যেন সৃষ্টিকর্তা আমাদের প্রতিমন্ত্রীর বীর বাহাদুরের এবং মে হ্লা প্রু দিদিকে দীর্ঘায়ু দান করেন।
অন্যদিকে অসুস্থ বেবী দে কে দেখে আসার পথে রানী দাশ ( ৯৫) নামের এক অসহায় মহিলার পাশে দাড়াঁন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি’র সহধর্মিনী মে হ্লা প্রু।
স্থানীয়রা জানান, রানী দাশ (৯৫) এর নিজের বলতে কোন কেউ নেই বাড়ির পাশ্ববর্তী লক্ষী দে নামক এক মহিলা তার দেখাশুনা করেন। মে হ্লা প্রু তার এমন অসহায়তার কথা শুনে তার চিকিৎসার জন্য ও নগদ অর্থ প্রদান করেন।
রানী দাশ ( ৯৫) বলেন, আমার স্বামী নেই, নেই কোন সন্তান, আমি একজন এতিম। আমাকে কেউ কখনো এতো গুলো টাকা দেয়নি। আজ বীর বাহাদুর এমপির সহধর্মিনী আমাকে চিকিৎসা ও ঔষুধ কিনার জন্য কত গুলো টাকা দিলেন, সৃষ্টিকর্তা তাদের আমার মাথায় যতগুলো চুল আছে তার সমান পূর্ণ্যতা দান করুক।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমেচিং মার্মা, বান্দরবান ডনবস্কো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সীমা দাশ, শিক্ষিকা মেনি প্রু সহ স্থানীয় জনসাধারণ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Subel Barua বলেছেন

    টাকা থাকলে কি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।