বান্দরবানে জনসংহতি সমিতি সদস্য আটক, ‘অস্ত্র উদ্ধার’

বান্দরবানের রুমায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির এক সদস্যকে আটক করেছে সেনাবাহিনী, যিনি স্থানীয় একটি ইউনিয়ন পরিষদেরও সদস্য।তার কাছ থেকে অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয় বলেও সংশ্লিষ্ট সেনাকর্মকর্তা জানিয়েছেন।

রুমা সেনা জোনের কমান্ডার লেফট্যানেন্ট কর্নেল গোলাম আরিফুল আলম জানান, শুক্রবার ভোর ৩টার দিকে রুমা বাজারের বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক শৈহ্লাপ্রু মারমা (৪৬) রুমা ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

এছাড়া তিনি পাবর্ত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) রুমা থানা এলাকার সাধারণ সদস্য বলে কমিটির সভাপতি লুপ্রু মারমা জানান।

পরিবারের অভিযোগ, ‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসার’ জেরে শৈহ্লাপ্রুকে আটক করা হয়েছে।

সেনা কর্মকর্তা গোলাম আরিফুল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেনাবাহিনীর একটি দল শৈহ্লাপ্রুর বাড়িতে অভিযান চালায়।

“এ সময় তল্লাশি চালিয়ে একটি ঘর থেকে প্লাস্টিকে মোড়া একটি দেশি ও একটি বিদেশি পিস্তল এবং আট রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়, যার মধ্যে দুই রাউন্ড এম-১৬ রাইফেলের।”

এছাড়া একটি কিরিচ (লম্বা ছুরি) ও নগদ এক লাখ ৩৩ হাজার টাকাও পাওয়া য়ায় বলে আরিফুল জানান।

শৈহ্লাপ্রুর স্ত্রী পুচিং মারমা বলেন, “আমার স্বামী আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) করে বলে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছে। তাকে ফাঁসানো হয়েছে।”

রুমা থানার ওসি শরিফুল ইসলাম জানান, সকালে থানায় হস্তান্তর করার পর পুলিশ শৈহ্লাপ্রুর বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করেছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।