বান্দরবান সদর হাসপাতালের টয়লেটে গলায় ফাঁস দিয়ে নারীর আত্মহত্যা

বান্দরবান হাসপাতালের টয়লেটে গলায় ফাঁস দিয়ে বিউটি দাশ (৩৫) নামে এক নারী আত্মহত্যা করেছে।

শুক্রবার দুপুর আড়াই টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। মৃত বিউটি দাশ বান্দরবান সদরের কালাঘাটা এলাকার লিয়াকত আলী পাড়ার চন্দন দাশের স্ত্রী।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ৭এপিল বৃহষ্পতিবার সকালে ডায়রিয়া জনিত কারণে বিউটি দাশ বান্দরবান হাসপাতালে ভর্তি হয়। আজ দুপুরের দিকে বিউটি দাশ হাসপাতালের টয়লেটে যায়, অনেকক্ষণ হয়ে যাওয়ার পরও তিনি বেডে ফেরত না আসায় তার বড় ছেলে ঋত্বিক দাশ তার মাকে খুজতে টয়লেটে গেলে তার মাকে টয়লেটে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করে। এদিকে তার চিৎকার শুনে হাসপাতালের ডাক্তার ও অন্যান্যরা ছুটে গেলে তার মাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়, পরে পুলিশকে খবর দিলে বান্দরবান সদর থানার পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

বান্দরবান সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মো: জিয়াউল হায়দার জানান, বিউটি দাশ ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। দুপুরে জানতে পারি সে হাসপাতালের টয়লেটে গিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে আমরা বিষয়টি থানায় অবগত করলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) কানন চৌধুরী জানান, হাসপাতালের টয়লেট থেকে বিউটি দাশ নামে এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে , লাশের ময়না তদন্ত ও আইনগত কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।