রাঙামাটিতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়েছে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান

ছাত্রলীগ নেতা মেজবা উদ্দিনের হুমকি

সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কাজে বাঁধা ও সামাজিক এবং রাজনৈতিকভাবে হেয় করতে আমার বাসায় হামলা পুর্বপরিকল্পিত ও ষড়যন্ত্র বলে অভিযোগ করেছেন রাঙামাটি সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন আলম।

বাসায় ঢুকে সন্ত্রাসী হামলা, শিশু নির্যাতন, শ্লীলতাহানি ও হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাসহ গ্রেফতারের দাবিতে আজ শনিবার সকালে রাঙামাটি প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গত ১৯ আগস্ট আনুমানিক রাত সাড়ে ৯টায় ৭নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা মেজবা উদ্দিনের নেতৃত্বে ৪/৫ জন শহরের আলম ডক ইয়ার্ড এলাকায় নিজের বাসায় অতর্কিতভাবে প্রবেশ করে আমার শ্লীলতাহানিসহ আমাকে মারধর করে। আমার নাবালিকা মেয়েও রেহায় পাইনি তাদের নির্যাতন থেকে। ওই সময় আমি রাঙামাটি ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক নুর আলমের সাথে আমার নির্বাচনী এলাকায় টিউবওয়েল বাসনোর বিষয়ে আলোচনা করছিলাম।

নাসরিন ইসলাম জানান, মেজবা উদ্দিনসহ অপর হামলাকারীরা এলাকায় প্রায় সময় বিভিন্ন মেয়েদেরকে উক্ত্যক্ত করতো। তার লোলুপ দৃষ্টি থেকে আমিও রেহায় পাচ্ছি না। এমনকি আমার মেয়েকেও নানাভাবে উক্ত্যক্ত করে আসছে। কোনভাবে সুবিধা করতে না পেরে পরিকল্পিতভাবে সে আমার বাড়িতে হামলা ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।

তিনি জানান, অভিযুক্ত মেজবা উদ্দিনের নামে রাঙামাটি কোতয়ালী থানায় ২০১৬ সালে সুজন নামে এক যুবককে হাত পা বেধে নদীতে ফেলে হত্যা চেষ্টার মামলা রয়েছে। আমি থানায় অভিযোগ করার পর থেকে মেজবা আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে মেজবাসহ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সুষ্টু তদন্ত পুর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন আলম।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।