রামগড়ে কিশোরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

খাগড়াছড়ির রামগড় পৌরসভার চৌধুরীপাড়ায় ছোট বোনের বান্ধবীকে ধর্ষণের অভিযোগে মোঃ রহিম (১৫) নামে এক কিশোরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৮ মে) ভিকটিম কিশোরী (১৩) নিজেই বাদি হয়ে রামগড় থনায় মামলাটি দায়ের করে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে অভিযুক্ত কিশোর রহিম গা ঢাকা দিয়েছে।

মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়, রামগড় পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের চৌধুরীপাড়ার বাসিন্দা মোঃ নুরুর এক মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব সম্পর্কের কারণে ভিকটিম প্রায়ই তাদের বাসায় আসা-যাওয়া করতো। এভাবে একদিন বান্ধবীর খোঁজে ওদের বাসায় গেলে তার (বান্ধবীর) ভাই রহিম তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ঐ সময় বাসায় কেউ ছিল না। পরবর্তীতে বিভিন্ন প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে সে তাকে অনেকবার ধর্ষণ করে। শারীরিক পরিবর্তন দেখে মায়ের জিজ্ঞাসাবাদে ভিকটিম সবকিছু তাকে বলে দেয়। পরে মেডিকেল টেস্টে সে গর্ভবতী হওয়ার কথা ধরা পড়ে। এখন ভিকটিম ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে এজাহারে উল্লেখ করেছে।

স্থানীয়রা জানায়, গড় সোমবার সামাজিকভাবে সমাধানের চেষ্টা হলেও ছেলে পক্ষ থেকে অভিযোগ সরাসরি প্রত্যাখান করা হয়। পরে এলাকার নেতৃবৃন্দের পরামর্শে ভিকটিম ও তার মা রামগড় থানায় গিয়ে লিখিতভাবে অভিযোগপত্র দায়ের করে।

রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সামসুজ্জামান বলেন, মোঃ রহিমকে আসামী করে আজ (১৮ মে) ভিকটিক নিজে বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯(১) সংশোধন ২০০৩ ধারায় মামলাটি রুজু করা হয়েছে।

ওসি আরো জানান, ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামী গ্রেফতারে চেস্টা চলছে।

স্থানীয়রা জানায়, ভিকটিমের পরিবার অত্যন্ত দরিদ্র, আসামীর বাড়ির পাশে ভাড়া বাসায় তারা থাকে। মা অন্যের বাসাবাড়ি কাজ করে সংসার চালায়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।