রামগড় সীমান্তের ফেনী নদীর তীর ঘেঁষে প্রাচীর নির্মাণ করেছে ভারত

পতাকা বৈঠকে বিজিবির কড়া প্রতিবাদ

খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় পৌরসভার মন্দিরঘাট সীমান্তের ওপারে ফেনী নদীর তীর ঘেঁষে ভারত পাথর ও সিমেন্টের ঢালাইয়ে নির্মাণ করেছে শক্ত প্রাচীর। সীমানা আইন লংঘন করে জিরো লাইলের মাত্র ৩০-৪০ গজের মধ্যে তারা অবৈধভাবে প্রাচীরটি নির্মাণ করে।

অন্যদিকে, রামগড় থানার বিপরীতে সাব্রুমের দশমিঘাট এলাকায় সীমান্তের দেড়‘শ গজের মধ্যে পাকা ওয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করলে বিজিবির বাধায় তা বন্ধ রয়েছে। ১৯৭৫ সালের ইন্দিরা-মুজিব সীমানা আইন লংঘন করে জিরো লাইন হতে ১৫০ গজের মধ্যে ভারতের এসব অবৈধ স্থাপনা নির্মাণে বিজিবি কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে। গত শনিবার(১ মে) রামগড়-সাব্রুম সীমান্তে মৈত্রী সেতুর উপর ভারতীয় সীমান্তরক্ষীবাহিনী বিএসএফের সাথে অনুষ্ঠিত এক পতাকা বৈঠকে বিজিবি এ প্রতিবাদ জানায়। বৈঠকে রামগড়স্থ ৪৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে.কর্ণেল মোহাম্মদ আনোয়ারুল মাযহার এবং সাব্রুমের ৬৬ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের কমান্ড্যান্ট দীনেশ কুমার সিং নিজ নিজ পক্ষের নেতৃত্ব দেন।

বৈঠক শেষে ৪৩ বিজিবির পরিচালক লে.কর্ণেল মোহাম্মদ আনোয়ারুল মাযহার জানান, মন্দিরঘাট ও থানাঘাট এলাকার বিপরীত অংশের দুটি কাজই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

সরেজমিন পরিদর্শনকালে জানা যায়, রামগড় পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের মন্দিরঘাট এলাকায় ২২১৬/৬ আর.বি সীমানা পিলারের বিপরীত অংশে ভারত ফেনী নদীর কিনারা ঘেঁষে তরিগড়ি করে পাথর ও সিমেন্টের ঢালাইয়ে একটি বড় মজবুত প্রাচীর নির্মাণ করে। বিএসএফের পাহারায় ভারী মেশিনারিজ ব্যবহার করে তারা বিজিবির নজরে আসার আগেই অল্প সময়ের মধ্যে প্রাচীরটির নির্মাণ কাজ শেষ করে।

স্থানীয়রা জানায়, পাকা সীমান্ত রোড নির্মাণের জন্যই তারা মজবুত প্রাচীরটি নির্মাণ করে। প্রাচীরের পাশে মাটি ভরাট করা হয়েছে। বিজিবির নজরে আসার আগেই দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য তারা স্কেভেটর, মিক্সার ভ্যাহিক্যাল, ড্রাম ট্রাক ইত্যাদি ব্যবহার করে। প্রাচীরের নির্মাণ কাজ শেষে মাটি ভরাটের কাজ করার সময় গত শনিবার (১ মে) এটি বিজিবির নজরে আসার পর বাধা দিয়ে কজ বন্ধ করে দেয়া হয়।

অন্যদিকে, রামগড় থানা এলাকায় ২২১৫/৬ আর.বি সীমানা পিলারের বিপরীতে সাব্রুম বাজার সংলগ্ন দশমি ঘাট এলাকায় ফেনী নদীর তীর ঘেঁষে জিরো লাইন হতে ১৫০ গজের মধ্যে প্রায় ১০ ইঞ্চি প্রস্থের ইট সিমেন্টের পাকা প্রাচীরের নির্মাণ কাজ শুরু করে ভারত। কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের অজুাহাতে তারা শতাধিক ফুট লম্বা এ প্রাচীরের নির্মাণ কাজ করছিল। গত শনিবার (১ মে) বিজিবি বাধা দিয়ে কাজটি বন্ধ করে দেয়। গত রবিবার (২ মে) দুপুরে থানাঘাট ও মন্দির ঘাট সীমান্ত এলাকা ঘুরে দেখা যায়, দুইটি এলাকায়ই ভারতের নির্মাণ কাজ বন্ধ রয়েছে। এপারে বিজিবির প্রহরা রয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।