স্কুল ব্যাংকিংকে শিশুদের সঞ্চয় ১৪ কোটি টাকা : রাঙ্গামাটিতে কনফারেন্সে তথ্য প্রকাশ

রাঙ্গামাটিতে কনফারেন্স
বর্তমানে দেশে ১৫লক্ষ স্কুল ব্যাংকিং একাউন্ট চালু রয়েছে। এ একাউন্টের মাধ্যমে সাড়ে ১৪ শত কোটি টাকা সঞ্চয় জমা হয়েছে। ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড’র আয়োজনে এবং অন্যান্য ব্যাংকের সহযোগিতায় রাঙ্গামাটিতে স্কুল ব্যাংকিং কনফারেন্সে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়। আজ শনিবার সকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড মিলনায়তনে এ কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের (ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশন ডিপার্টমেন্ট) মহাব্যবস্থাপক মো. আবুল বশর।
ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড’র এস.ইভিপি এন্ড চীফ এন্টি-মানি-লন্ডারিং কমপ্ল্যাায়েন্স অফিসার সুধীর চন্দ্র দাশ’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ওয়ান ব্যাংক লি: এর এডিশনাল ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. ফজলুর রহমান চৌধুরী, রাঙ্গামাটি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা উত্তম খীসা, ওয়ান ব্যাংকের রিসোর্স পার্সন বিধান চন্দ্র সাহা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ওয়ান ব্যাংক রাঙামাটি শাখার ব্যবস্থাপক আজিজুর রহমান।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রাণী দয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রণতোষ মল্লিক, মুজাদ্দেদ-ই আলফেসানী একাডেমী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী ফারজানা আক্তার পায়রা। এর আগে ব্যাংকের কর্মকর্তা, আগত বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে উন্নয়ন বোর্ড প্রাঙ্গন থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে উন্নয়ন বোর্ড মিলনায়তনে গিয়ে মিলিত হয়।
কনফারেন্সের মাধ্যমে জানানো হয়, আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। আর কোমলমতি শিশুদের সঞ্চয়ী মনোভাব সৃষ্টির লক্ষ্যে স্কুল ব্যাকিং সিষ্টেম চালু করা হয়েছে। একদিন শিশুদের জমানো এসব টাকা তার উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এছাড়া শিশুর অভিভাবক যদি মারা যায় তাহলে ইন্স্যুরেন্সের মাধ্যমে শিশুকে অভিভাবক মরণোত্তর টাকা প্রদানের প্রক্রিয়া চালুর ব্যাপারে আলোচনা চলছে।
কনফারেন্সের আগে পবিত্র কোরআন তিলওয়াত এবং আগত অতিথিদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা এবং উত্তড়ীয় পড়ানো হয়। অনুষ্ঠানে জেলার বিভিন্ন স্কুলের প্রধান শিক্ষকসহ শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।