আলীকদমে অবৈধ পাথর পরিবহণ : আটক করে পুলিশকে হস্তান্তর

করোনা মহামারীতে সারাদেশের অন্য এলাকার মত বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায়ও স্তব্ধ হয়ে আছে। করোনা ও মাহে রমজানের মাঝেও থেমে নেই অবৈধ পাথর উত্তোলন। প্রশাসন যখন করোনা প্রতিরোধে ব্যস্ত তারমধ্যে বেপোরোয়া হয়ে উঠছে অবৈধ পাথর উত্তোলনের সাথে জড়িতরা।

অন্যান্য রাতের মতো গতরাতে (মঙ্গলবার) ঝিড়ি থেকে উত্তোলন করা পাথর পরিবহনের সময় বান্দরবানের আলীকদমে গভীর রাতে পাথর বোঝাই ট্রাক (ডাম্পার) আটকে দিয়েছে যোগেন্দ্র পাড়ার বাসিন্দারা। পরে এলাকাবাসী পাথরসহ গাড়ীটি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে এগারোটার দিকে রোয়াম্ভু ঝিড়ি থেকে উত্তোলিত পাথরকে ছোট টুকরা করে নয়াপাড়া নেওয়ার সময় যোগেন্দ্র পাড়ায় গাড়ীটি আটক করে স্থানীয়রা।

‌স্থানীয়রা জানায়,রোয়াম্ভু খাল পানিশূন্য হয়ে গেছে পাথর উত্তোলন করায়। প্রতিদিন রাতে ঝিড়ি থেকে উত্তোলন করা পাথর গাড়ীতে করে অন্যত্র নিয়ে যায়। এভাবে পাথর উত্তোলন ও পরিবহনের ফলে বিভিন্ন সমস্যায় পড়ছে এলাকাবাসী। করোনা পরিস্থিতিতে আমরা কাউকে এলাকায় প্রবেশ করতে দিচ্ছি না। কিন্তু রাজনৈতিক দলের ক্ষমতার জোর দেখিয়ে পাথর উত্তোলনকারী প্রতিদিন রাতে বিভিন্ন এলাকার শ্রমিক, চালক ও গাড়ী নিয়ে পাথর পরিবহন করছে আমাদের এলাকার একটু দূরের কন্ন নামক ঝিড়ি থেকে উত্তোলন করা পাথরগুলো। পাথরসহ গাড়ী আটকের পর সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানানো হয়েছে। পরিশেষে পুলিশ গিয়ে পাথরসহ গাড়ী আটক করে। আটক করা পাথরগুলো রোয়াম্ভু জয়নাল আবেদীনের বলে জানায় এলাকাবাসী।

পাথরসহ গাড়ী ও গাড়ী চালকের আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে আলীকদম থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দিন জানান, খনিজ সম্পদ আইনে মামলা করা হয়েছে। আটককৃত গাড়ী চালকের নাম আব্দুল মোতালেব বাপ্পু, পাথরের মালিক জয়নাল আবেদিন,গাড়ীর মালিক মনু।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।