ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক সংস্কারে ৮ কোটি টাকা চেয়ে চিঠি

বান্দরবান-রুমা সড়ক ২৪ কিলোমিটার অংশে সড়কসহ পাহাড় ধসে পড়ে ১৩ জুন। যান চলাচল বন্ধ থাকায় ধসে পড়া অংশে ঝুঁকি নিয়ে পার হয় লোকজন (প্রথম আলোর ফাইল ছবি)
বান্দরবানে পাহাড়ধসে ক্ষতিগ্রস্ত আটটি প্রধান সড়ক জরুরি ভিত্তিতে সংস্কারের জন্য ৮ কোটি টাকা চেয়ে সেতু ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। গত মঙ্গলবার সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) বান্দরবান কার্যালয় থেকে এ চিঠি পাঠানো হয়। এ তথ্য জানান সওজের বান্দরবান কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল ইসলাম খান।

গত ১৩ জুনের পাহাড়ধসে ক্ষতিগ্রস্ত হয় এসব সড়ক। এই সড়কগুলোর মাধ্যমে বান্দরবানের সঙ্গে চট্টগ্রাম শহরসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলার যোগাযোগ রক্ষা করা হয়। দ্রুত সংস্কার না হলে যেকোনো মুহূর্তে কোনো না কোনো সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সওজের প্রকৌশলীরা।

আটটি সড়ক হলো বান্দরবান-চট্টগ্রাম, বান্দরবান-রুমা, রাঙামাটি-বান্দরবান, আলীকদম-থানচি, রামু-নাইক্ষ্যংছড়ি, বান্দরবান-থানচি, চিরিঙ্গা-লামা ও নাইক্ষ্যংছড়ি-তুমব্রু। এর মধ্যে বান্দরবান-রুমা ও আলীকদম-থানচি সড়কে এখনো যান চলাচল বন্ধ।

সওজের প্রকৌশলীরা জানান, দুটি সড়কের মধ্যে বান্দরবান-রুমা সড়কের ধসে পড়া অংশ পুনর্নির্মাণে কাজ করছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা। যেকোনো সময় এটি খুলে দিতে পারেন তাঁরা। আলীকদম-থানচি সড়কে ধসের মাত্রা বেশি হওয়ায় সেটি যান চলাচলের উপযোগী করতে বেশ কিছু সময় লাগবে।

নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল ইসলাম খান প্রথম আলোকে বলেন, ভারী বৃষ্টির কারণে সড়কগুলোর কোথাও প্রতিরোধ দেয়াল ধসে পড়েছে, কোথাও বিপজ্জনকভাবে ধসের আশঙ্কায় রয়েছে। এ ছাড়া সড়কের বাঁধের অংশবিশেষ ভেঙে গেছে। কোথাও কয়েক শত মিটার পর্যন্ত পিচঢালাই ওঠে গেছে। এসব জরুরি ভিত্তিতে সংস্কার ও পুনর্নির্মাণ করা না হলে সামান্য বৃষ্টিতেও ধসে গিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে। সূত্র : প্রথমআলো

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।