খাগড়াছড়িতে আইসোলেশনে মৃত যুবকের শরীরে করোনা ভাইরাস মেলেনি

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বুধবার মৃত যুবকের শরীরে কোভিড-১৯ এর অস্তিত্ব মেলেনি।

খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা. নুপুর কান্তি দাশ জানান, ওই যুবকের মৃত্যুর পর জরুরী ভিত্তিতে মৃত যুবকের নমুনা ঢাকায় আইইডিসিআর-এ প্রেরণ করা হয়। শনিবার সেই রিপোর্ট এসেছে। তাতে তাঁর শরীরে কোভিড-১৯-এর নমুনা পাওয়া যায়নি।

মাইসছড়ির ইউপি চেয়ারম্যান সাজাই মারমা জানান, নিহত ব্যক্তির বয়স ৩০ বছরের মতো। তিনি দিন মজুরী পেশায় নিয়োজিত ছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বলে জানিয়েছে স্বজনরা।

সিভিল সার্জন আরো জানান, বুধবার সকালে শ্বাসকষ্ট, গলা ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে আসলে লক্ষণ দেখে তাকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে। লক্ষণ দেখে সন্দেহ হওয়ায় নিহত ব্যক্তি থেকে সংগ্রহ করা নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হবে। তার চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা চিকিৎসকসহ, ২ নার্স ও ১ আয়াকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাঁর মরদেহও যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে স্বাস্থ্য বিভাগের তত্ত্বাবধানে নিহতের গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়েছে।

খাগড়াছড়ি জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক ও জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস জানান, খাগড়াছড়ি জেলাসদর হাসপাতালে আইনোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় যুবকের মৃত্যু নিয়ে জেলাবাসীর মধ্যে ব্যাপক আলোচনা শুরু হলে জরুরী ভিত্তিতে তাঁর নমুনা ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

আজ শনিবার (২৮মার্চ) দুপুরে আইইডিসিআর-এর প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। তাতে ওই যুবকের শরীরে কোভিড-১৯ পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।