খাগড়াছড়িতে চোরের হামলায় বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ আহত ২ : আটক ১

ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আটক জাহাঙ্গীর আলম
খাগড়াছড়ি জেলা শহরের জনবল বৌদ্ধ বিহারের ভিক্ষু ও ভিক্ষুর সেবকের ওপর হামলা চালিয়েছে এক চোর। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে বিহারে চুরির চেষ্টাকালে বাধা দেয়ায় ভিক্ষুদের ওপর হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছেন বিহার কর্তৃপক্ষ। আহতরা হলেন, বান্দরবানের সুয়ালক এলাকার শলিল তঞ্চগ্যার ছেলে ভান্তে জিনিতা ভিক্ষু(৩২) এবং খাগড়াছড়ির ভাইবোন ছড়া এলাকার দো অং মারমা ছেলে সেবক নিউ মং মারমা(২৫)। ভিক্ষুর দেয়া ছবি’র ভিত্তিতে রাত ১০টায় ঘটনার সাথে জড়িত জাহাঙ্গীর আলমকে (২২) আটক করেছে পুলিশ। সে জেলা সদরের সার্কিট হাউজ এলাকার ইসমাইল হোসেনের ছেলে।
ভান্তে জিনিতা ভিক্ষু জানান, রাত ৮টার দিকে কুকুরের আওয়াজ শুনে বের হয়ে দেখি বিহারে উঠার রাস্তা দিয়ে একজন আসছে। রাতে কেন বিহারে এসেছে জানতে চাইলে সে পালানোর চেষ্টা করে। তখন তাকে আটকানোর চেষ্টা করলে তার হাতে থাকা লোহার রড দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। এতে আমার সেবক তাকে ধরার চেষ্টাকালে তাকেও আঘাত করে। আমাদের চিৎকারে বিহারের ভেতর থেকে লোকজন এসে আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। গত ২/৩ দিন আগেও রাত ১টার দিকে ভিক্ষু নিবাসের দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করা হয় বলে জানান ভান্তে।
খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের চিকিৎসক মীর মোশারফ হোসেন জানান, ভিক্ষুর মাথায় আঘাত লেগেছে আর অন্য জনের বাম পায়ের হাটু ও পায়ের তলায় আঘাত লেগেছে, প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে তারা চলে গেছেন।
খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম সালাহউদ্দীন জানান, ভিক্ষুর মোবাইলে ধারণ করা ছবি’র সূত্র ধরে সদর থানার ওসি তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান ও এসআই আব্দুল্লাহ আল মাসুদের নেতৃত্বে এক ঘন্টার মধ্যে সার্কিট হাউজ এলাকা থেকে জাহাঙ্গীর আলম নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে চুরির উদ্দেশ্যে বিহারে প্রবেশ করে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিহার কর্তৃপক্ষ এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।