চন্দ্রঘোনা কেপিএম মিলকে সচল রাখতে পরিকল্পনা গ্রহন করছে সরকার : সংসদীয় কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত

কর্ণফুলী পেপার মিলস
রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার ঐতিহ্যবাহী কর্ণফুলী পেপার মিলস লি. (কেপিএম) তিন পার্বত্য জেলার অর্থনীতির সাথে ব্যাপকভাবে জড়িত। কেপিএম’কে কেন্দ্র করে পার্বত্য জেলায় ব্যাপক বনায়ন ও অন্যান্য ব্যবসা বাণিজ্য প্রসার হয়েছে। বর্তমানে কেপিএম এর অচলাবস্থার কারনে পার্বত্য জেলার অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এবং কেপিএম নির্ভর লক্ষ লক্ষ মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছে। কেপিএম কে পূর্ণাঙ্গভাবে সচল করতে যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং অনতিবিলম্বে সংসদীয় কমিটি থেকে একটি উচ্চ পর্যায়ের টিম কেপিএম পরিদর্শনে যাবে।
পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি’র সভাপতিত্বে আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদের কেবিনেট কক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ৩২তম সভায় কেপিএমের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।
সভায় অন্যান্য বিষয়ের সাথে কর্ণফুলী পেপার মিলস এর সার্বিক বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়। উক্ত আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যের পর এম এ আউয়াল এমপি, রাঙামাটি সাংসদ ঊষাতন তালুকদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি, শিল্প সচিব মোঃ আব্দুল্লাহ সহ অন্যান্যরা কেপিএমকে পূর্ণাঙ্গভাবে সচল করা এবং শ্রমিক কর্মচারী সহ অন্যান্য সকলের যাবতীয় বকেয়া দ্রুত পরিশোধের বিষয়ে আলোচনা করেন।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্রলাল ত্রিপুরা এমপি, পার্বত্য মন্ত্রণালয় সচিব, শিল্প মন্ত্রণালয় সচিব, প্রাথমিক গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয় সচিব, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, পুলিশের ডিআইজি মো. রুহুল আমিন, ভুমি মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রণালয় সমূহের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বৃন্দ সহ বিসিআইসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাইয়্যুল কাইয়্যুম, পরিচালক (উৎপাদন) মোঃ শাহিন কামাল, উর্ধ্বতন মহা ব্যবস্থাপক আসাদুর রহমান টিপু, কেপিএম এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এম এ কাদের উপস্থিত ছিলেন।
সভা শেষে সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদারের একান্ত সহকারী এম.আর. হোসাইন জহির জানান, রাঙামাটি সংসদ সদস্য তার নির্বাচনী এলাকার অন্যান্য উন্নয়নের পাশাপাশি দীর্ঘদিন যাবৎ কেপিএম এর সমস্যা সমাধানের লক্ষে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় সংসদের সর্বোচ্চ ফোরামে কেপিএম এর বিষয়টি তিনি উত্থাপন করেছেন। এই আলোচনায় শিল্প মন্ত্রণালয় এবং বিসিআইসির সকল নীতি নির্ধারক উপস্থিত থেকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কেপিএম কে আবারো সচল করার যে উদ্যোগ নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমি মনে করি তিন পার্বত্য জেলার অর্থনীতির জন্য একটি সুখবর বলে মনে করি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।