ধর্মীয় অনুশাসন, অপরাধ কর্মকান্ড রোধ করে : কংজরী চৌধুরী

ধর্মীয় অনুশাসন মানুষকে অপরাধমুলক সকল কর্মকান্ড থেকে বিরত রাখে। তাই সকল ধর্মের মানুষকে ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলা প্রয়োজন। তবেই আমরা সকল খারাপ কাজ থেকে দুরে থাকতে পারবো। ধর্মীয় উপাসনা মনকে যেমন পবিত্র করে তেমনি সকল কাজেও স্বচ্ছতা আসে।

আজ শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে জেলা শহরের কনভেশন সেন্টারে আয়োজিত সনাতন ছাত্র-যুব পরিষদের নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির শপথ গ্রহণ ও অভিষেক এবং শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বস্ত্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, সকলের সন্তান কি করছে। কোথায় যাচ্ছে। কাদের সাথে মিশছে সে বিষয়ে সচেতন হতে হবে। এটি শুধু মায়েদের দায়িত্ব নয়। পরিবারে স্বামী-স্ত্রী উভয়ে সন্তানদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গড়তে সচেতনতার বিকল্প নেই। সে সাথে ধর্মের বিধি-বিধান মেনে সন্তানদের ধর্মীয় শিক্ষা দেওয়ার উপরও তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

সনাতন ছাত্র-যুব পরিষদ নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি স্বপন ভট্টাচার্য্য’র সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি লক্ষী নারায়ন মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল দেব, বাংলাদেশ পুজা উদযাপন পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তরুণ কান্তি ভট্টাচার্য্য,সনাতন সমাজ কল্যাণ পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির এড. বিধান কানুনগো,সনাতন ছাত্র-যুব পরিষদের স্থায়ী কমিটির সদস্য রনজিৎ দে,উপদেষ্টা স্বপন চন্দ্র দেবনাথ প্রমূখ।

এর আগে নবনির্বাচিত কমিটির সকল সদস্যকে শপথ বাক্য পাঠ করে নেতৃবৃন্দদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। সে সাথে প্রথম অধিবেশনের বক্তব্য শেষে প্রধান অতিথি খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বিভিন্ন উপজেলাসহ খাগড়াছড়ির পুজা উদযাপন কমিটির হাতে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বস্ত্রদান করেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।