বান্দরবানে ভরাখালী যুব সমাজের উদ্যোগে মাহফিল

বান্দরবানে ভরাখালী যুব সমাজের উদ্যোগে মাহফিল
বান্দরবানে বালাঘাটা ভরাখালী যুব সমাজের উদ্যোগে তাফসীরুল কোরআন মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এই মাহফিল চলে। বালাঘাটা ভরাখালী মাঠ প্রাঙ্গনে মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় ।
তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে প্রধান মেহমান ও প্রধান আলোচক হিসেবে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন আর্ন্তজাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বক্তা মুফচ্ছির কোরআন মাওলানা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনচারী সাহেব। তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক আলহাজ্ব কামাল হোসেন। মাহফিলে বিশেষ বক্তা হিসেবে তাকরির পেশ করেন বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও মুফাচ্ছির কোরআন চট্টগ্রাম কর্ণেল হাট বাইতুল মামুন জামে মসজিদের খতিব মাওলানা জালাল উদ্দিন সাহেব।
বিশেষ ওয়াজেন হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ইসলামী আলোচনা করেন চট্টগ্রাম সাতকানিয়া ব্যবসায়ী পাড়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা বেলাল হোসেন আনচারী সাহেব,বান্দরবান ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল আওয়াল,বালাঘাটা বাজার জামে মসজিদের খতিব হযরত মাওলানা আবুল কালাম (আজাদ),বালাঘাটা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আলহাজ্ব আরিফুল ইসলাম সাহেব,পূর্ব বালাঘাটা লেমুঝিড়ির মুখ জামে মসজিদের খতিব হযরত মাওলানা আহমদ কবির,পশ্চিম বালাঘাটা জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোবাশ্বির বিন আজহার,মুসলিম পাড়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল্লাহ,পূর্ব মুসলিম পাড়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আজগর হোসাইন,ভরাখালী জামে মসজিদের খতিব মাওলানা এনামুল হক,বাকিছড়া মুখ জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মোঃ তারেক হাসান, নাতে রাসুল(সঃ) পেশ করেন,সাতকানিয়া আনোয়রা বেগম হিফজখানা হাফেজ জানাইদ বিন আহমদসহ স্থানীয় ওলামায়েকরামগন মাহফিলে তাকরীর পেশ করেন।
তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে বক্তারা বলেন,কোরআন হচ্ছে সমগ্র মানব জাতির জন্য পথ পদর্শক একটি আসমানী কিতাব,কোরআনের মধ্যে ইসলাম যে একটি পরিপূর্ণ জীবন ব্যবস্থা তা প্রকাশ করেছেন মহান আল্লাহ,ইসলাম একটি শান্তির ধর্ম,ইসলামে জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাস,বোমা বাজদের কোন স্থান নেই,মানুষকে অন্যায় ভাবে হত্যা করা ইসলামে হারাম।
তারা আরো বলেন, মুসলমানরা আজ কোরআন থেকে দুরে সরে আসার কারণে সারা বিশ্বে জুলুম,অত্যাচারের শিকার হচ্ছে। আল্লাহর হুকুম পালন না করার কারনে মুসলমানদের মাঝে মাঝে আল্লাহ পরিক্ষা করে থাকেন,বান্দা তার পাপ থেকে ফিরে এসে তওবা করলে মহান আল্লাহ সেই আজাব থেকে মুক্ত করে দেন।
বক্তারা আরো বলেন,যে মক্কার লোকরা কন্যা সন্তান জম্ম হলে তাদেরকে জীবন্ত কবর দিত,তারা কোরআন এর নির্দেশ ও রাসূল(সাঃ)এর হাদিস মেনে চলার কারণে তারা আজ পৃথিবীর সবচেয়ে দামী মানুষ হিসেবে পরিচিত ও মহান আল্লাহর কাছ থেকে জান্নাতের সু-সংবাদ পেয়েছে।
পরে মাহফিল বাস্তবায়ন করার জন্য যারা সার্বিক সহযোগিতা করেছেন তাদের ও এলাকার প্রবীন যারা অসুস্থ আর যারা কবরে চলে গেছেন তাদের কল্যাণের জন্য,বীর বাহাদুর এমপি,পৌর মেয়র মোঃ ইসলাম বেবীসহ বান্দরবানবাসীর কল্যাণের জন্য,দেশের জন্য এবং সারা বিশ্বের মুসলমানদের নির্যাতন বন্ধে এবং সারা পৃথিবীর শান্তি কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।