বান্দরবানে শুরু হয়েছে তিনদিনব্যাপী লীলা কীর্ত্তন , ধর্মসম্মিলন ও নামসংকীর্ত্তন

স্বর্গীয় উপেন্দ্র লাল দাশ ও স্বর্গীয়া শৈলবালা দাশ এর প্রয়াণ দিবস স্মরণে বান্দরবানে শুরু হয়েছে তিনদিনব্যাপী লীলা কীর্ত্তন ও ধর্মসম্মিলন।

বান্দরবানের বিশিষ্ঠ সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী সাধন চন্দ্র দাশ,সুনীল চন্দ্র দাশ,নিরঞ্জন দাশ,মনোরঞ্জন দাশ ও পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষীপদ দাশের উদ্যোগে বান্দরবান রাজার মাঠে বর্ণাঢ্য আয়োজনে এই লীলা কীর্ত্তন , ধর্মসম্মিলন শুরু এবং নামসংকীর্ত্তন শুরু হয়েছে এবং আগামী ৬ মার্চ(শনিবার) ব্রাক্ষ্ম মুহূর্তে এই মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটবে।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) বিকেল ৫ টায় মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জলন ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে তিনদিনব্যাপী লীলা কীর্ত্তন ও ধর্মসম্মিলন এর উদ্বোধন করেন ঋষিধাম বাঁশখালী ও তুলসীধাম চট্টগ্রামের মোহন্ত শ্রীমৎ স্বামী সুদর্শনানন্দ পুরী মহারাজ।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় শুরু হয় ধর্মসম্মিলন । এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের রিজিয়ন কমান্ডর ব্রিগেডিয়ায় জেনারেল মো:জিয়াউল হক (এনডিসি,এএফডব্লিউ,পিএসসি), জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভিন তিবরীজি,পুলিশ সুপার জেরিন আখতার,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো:লুৎফুর রহমান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল,পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর সহ সরকারী বেসরকারী কর্মকর্তা ও সনাতনী নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে প্রধান ধর্মীয় আলোচক ছিলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর সুকান্ত ভট্টাচার্য ।

ধর্মসম্মিলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বক্তারা বলেন, বাবা-মায়ের ঋণ কখনও শোধ করা সম্ভব নয় । সন্তান হতে হলে সুসন্তান হতে হবে। হতে হবে মানবিক ও সামাজিক । সমাজে অন্যায় কাজ থেকে প্রত্যেককে বিরত থাকার জন্য আহ্বান জানান বক্তারা ।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।