বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন পূরণে একজন বীর বাহাদুর

বান্দরবান জেলা প্রশাসকের অফিস কক্ষে সদর উপজেলার সুয়ালকে বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় ক্রয়কৃত জমির কবুলিয়তে সই করছেন বীর বাহাদুর উশৈসিং এম,পি
বান্দরবানের শিক্ষার কথা, পশ্চাৎপদতার কথা, পিছিয়ে থাকা অতীত কোন সময় নিয়ে কোন একদিন কথা উঠলেই……… ঠিক এই ছবিটিই, এই ছবির সাদামাটা প্রিয় মানুষটিই নতুন প্রজন্ম, অনাগত প্রজন্মের কাছে বর্তমান হয়ে ভেসে উঠবে…. এবং উঠবেই। প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে আলো হয়ে দ্যুতি ছড়াবে, অনাগত প্রজন্মের কাছে এই ছবিটিই হয়তো একদিন সমুজ্জ্বল হয়ে, আমাদের পেছন থেকে সামনে আসার সেই বৈরী সময়ের উদাহরণ টেনে এগিয়ে যাওয়ার প্রিয় প্রেরণা হয়ে অফুরান সাহস যোগাবে….।
এই মানুষটি তিনিই…. । ৮০’র দশকে যিনি উচ্চ শিক্ষা আহরণ করার ব্রত নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌছেছিলেন… যখন এখানে হাতে গোনা সীমিত সংখ্যক পরিবার তাদের সন্তানদের বিশ্ববিদ্যালয়ের গন্ডিতে পৌছানোর সুযোগ করে দিতে পারতো। সাধারণ পরিবারে বেড়ে ওঠেও মতিহারের সেই সবুজ চত্বরে একদিন তিনি অন্ধকারাচ্ছন্ন এই বান্দরবানকে আলোকিত করার, বদলে যাওয়ার, বদলে দেয়ার স্বপ্ন বুনতেন…. শিক্ষা জীবনের ইতি টেনেই তিনি শিক্ষা-দীক্ষায় অনুন্নত বান্দরবানকে আলোকিত করার ব্রতে আলোর মশাল প্রজ্জলিত করেন… আর পিছিয়ে পড়া এই অঞ্চলের মানুষ খুঁজে পায় তাদের কাঙ্খিত আলোর ঠিকানা….।
ছবির এই ক্ষণটি গত শুক্রবার সন্ধ্যায়… জেলা প্রশাসকের অফিস কক্ষের। বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সদর উপজেলার সুয়ালকে ক্রয়কৃত জমির কবুলিয়তে সই করছেন শিক্ষার অগ্রদূত, গণ মানুষের ভালবাসা সিক্ত প্রিয় নাম বীর বাহাদুর উশৈসিং এম,পি। আর ২০১৮ সাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাজ শুরুর আশাবাদ ব্যক্ত করলেন বর্তমানে পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। হয়তো এই ছবিটাই কোন একদিন কালের সাক্ষী হয়ে কথা বলবে…।

লেখক:
সাদেক হোসেন চৌধুরী
সম্পাদক
পাহাড়বার্তা ডটকম।

আরও পড়ুন
2 মন্তব্য
  1. Shyamal Tanchangya বলেছেন

    salute sir apnake.

  2. Suchanda Chakma বলেছেন

    sapno sofal hok.

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।