রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যবামং মারমাকে অপসারণ

রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যবামং মারমা
বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান,পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমাকে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের (উপজেলা-২ শাখা) সিনিয়র সহকারী সচিব লুৎফর নাহারের স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের (নং ৪৬.০৪৫.০২৭.০৮.১০৪. ১০৪.২০১৬-২৮৯ তারিখ ২২ মার্চ ২০১৭ মূলে) মাধ্যমে উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮ [উপজেলা পরিষদ (সংশোধন) আইন, ২০১১ দ্বারা সংশোধিত] এর ১৩(১)(ক) ও ১৩(১)(গ) ধারায় অসদাচরণ ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে অপসারণ করা হয়েছে।
এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মঙ্গল কুমার চাকমা এক বিবৃতিতে বলেন, সরকারের একটি বিশেষ মহলের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ক্যবামং মারমার বিরুদ্ধে অপহরণ, চাঁদাবাজি, ভয়ভীতি প্রদর্শন ইত্যাদি মিথ্যা অভিযোগ এনে একের পর এক সাজানো মামলা দায়ের করা হয়। মিথ্যা মামলা দায়ের করে ক্যবামং মারমাকে রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে বাধাগ্রস্ত করা হয়।
বিবৃতিতে আরো বলেন, ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতাসীনদের একটি বিশেষ মহল কর্তৃক জনগণের ভোটে নির্বাচিত ক্যবামং মারমাকে রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে এভাবে অপসারণ করা সরকারের অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাসীবাদী নীতিরই বহি:প্রকাশ বৈ কিছু নয়। দেশের গণতন্ত্র, সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও উপজেলাবাসীর সার্বিক উন্নয়নের স্বার্থে অচিরেই বাতিল করত: ক্যবামং মারমাকে পরিষদের চেয়ারম্যান পদে পুনর্বহালের দাবি জানাচ্ছে এবং সেই সাথে তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সাজানো ও ষড়যন্ত্রমূলক সকল মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছে।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Glorious Junayed বলেছেন

    এভাবে সন্ত্রাসীদেরকে প্রশাসনের প্রত্যেক স্হান থেকে বিতাড়িত করা হওক।।।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।