লামায় বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে ট্রাকসহ খাদে : যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

লামায় ভেঙ্গে পড়া ব্রিজ ও সড়কের একাংশ
বান্দরবানের লামা উপজেলার আজিজনগর-গজালিয়া সড়কে ট্রাক পারাপারের সময় বেইলি ব্রিজের ও সড়কের একটি অংশ ভেঙ্গে ট্রাকসহ খালে পড়ে গেছে। রোববার বিকেলে সড়কের মগবাজার সংলগ্ন বেইলি ব্রিজের ওপর এ ঘটনা ঘটে। ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ার কারণে কাছাকাছি তিন ইউনিয়নের প্রায় ১০ হাজার মানুষের স্বাভাবিক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে পড়েছে। ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ার ১৭ ঘন্টা পার হলেও সোমবার সকাল ১১টা পর্যন্ত সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেয়নি সড়ক ও জনপথ বিভাগ। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন জনসাধারণ। সড়ক নির্মাণে অনিয়ম ও ধারণ ক্ষমতার বেশি ওজনের যানবাহন চলাচলের কারণে সড়ক ও ব্রিজ ধসে পড়ে স্থানীয়দের অভিযোগ।
স্থানীয় সূত্র জানায়, ছয় মাইল এলাকার একটি ব্রিক ফিল্ড থেকে ইট বোঝাই করে একটি ট্রাক রবিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে আজিজনগর যাওয়ার সময় ব্রিজের পাটাতন ও সড়কের একটি অংশ ধসে খালে পড়ে যায়। পরে ট্রাকের মালিকপক্ষ ট্রাকটি তুলে নিয়ে গেলেও ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ায় দুই পাশের আজিজনগর, ফাইতং ও গজালিয়া ইউনিয়নের সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। রমজানের এই সময় সড়কপথ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।
স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, কিছুদিন আগে আজিজনগর-গজালিয়া সড়কটির কাজ করে সড়ক ও জনপদ বিভাগ। সড়ক নির্মাণের সময় নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছিল। বিধায় নির্মাণের ৩ মাস না যেতেই ব্রিজটি ও সড়কটির একটি অংশ ভেঙ্গে পড়েছে। এতে করে আজিজনগর ইউনিয়নের ৬, ৭নং ওয়ার্ড, ফাইতং ইউনিয়নের ১,২,৩ নং ওয়ার্ড ও গজালিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের প্রায় ১০ হাজার মানুষ যাতায়াতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। তারা আরও বলেন, সাধারণ মানুষ সড়ক নির্মাণের সময় অনিয়মের প্রতিবাদ করলে সড়ক ও জনপথ বিভাগের দায়িত্বরতরা অভিযোগ কর্ণপাত না করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ব্যক্তিগত সুবিধা নিয়ে যেনতেন ভাবে কাজ করেন।
আজিজনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন বলেন, আজিজনগর-গজালিয়া সড়কে বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ার ঘটনা শুনেছি। সড়ক দিয়ে ধারণ ক্ষমতার বেশি ওজনের যানবাহন যাতায়াতের কারণে সড়কটি ভেঙ্গে পড়ে। সড়ক ও জনপথ বিভাগের দায়িত্বরতদের সাথে সমন্বয় করে দ্রুত সড়ক যোগাযোগ চালু করার ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান তিনি।
সোমবার সকাল ১১টার দিকে এ বিষয়ে বান্দরবান সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও; সংযোগ না পাওয়ায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
এদিকে লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুর-এ জান্নাত রুমি বলেন, সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলেছি, দ্রুত ব্রিজটি মেরামত করে যোগাযোগ সচলের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন
3 মন্তব্য
  1. Rahul Happyman বলেছেন

    একবার বলে ট্রাকের অতিরিক্ত মাল বোঝাই এর কারণে আবার ব্রিজ নির্মানে অনিয়ম।_#স্বাধীনতা_#মতপ্রকাশ_#গণতন্ত্র

  2. Kazal Das বলেছেন

    লামা চকরিয়া সরাসরি গাড়ি যোগাযোগ বন্ধ।

  3. Moin Khan বলেছেন

    Hossain Yuvraj Jubair eya ken oibo?

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।