লামায় মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ রাখায় ৪ ফার্মেসীকে জরিমানা

নিম্নমানের, মেয়াদ উত্তীর্ণ ও ভেজাল ঔষধ রাখার অভিযোগে বান্দরবানের লামা উপজেলা শহরের বিভিন্ন ফার্মেসীতে অভিযান পরিচালনা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইশরাত সিদ্দিকার নেতৃত্বে উপজেলা শহরের বিভিন্ন ফার্মেসীতে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক মো. শফিউর রহমান মজুমদার, থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. জয়নাল আবেদীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বিভিন্ন অভিযোগে চার ফার্মেসীকে ২৯ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইশরাত সিদ্দিকা।

সূত্র জানায়, কিছু অসাধু ফার্মেসীর মালিক দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার সাধারণ মানুষের মাঝে নি¤œ মানের, মেয়াদ উত্তীর্ণ ও ভেজাল ঔষধ বিক্রির মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে ব্যবসা করে আসছে; এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইশরাত সিদ্দিকার নেতৃত্বে সঙ্গীয় সদস্যরা শহরের বিভিন্ন ফার্মেসীতে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় ফ্রিজের মধ্যে নোংরা পরিবেশে ইনজেকশন রাখা, নি¤œ মানের ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ রাখা ও ডাক্তার না হয়েও নামের আগে ডাক্তার লেখার দায়ে যমুনা ফার্মেসীকে ৭ হাজার, আদর্শ ফার্মেসীকে ৭ হাজার, শান্তি নিকেতনকে ১০ হাজার ও জুনায়েদ ফার্মেসীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং কিছু মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ করেন। পরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে জব্দকৃত ঔষধ আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি (ইউএনও) বলেন, নি¤œ মানের ও ভেজাল ঔষধ বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।