২০ পেরিয়ে ২১ শে হাজী এমএ কালাম ডিগ্রী কলেজ , যোগ দিবেন প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর

বান্দরবান পার্বত্য জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ হাজী এমএ কালাম ডিগ্রী কলেজের ২০ বছর পূর্তি আগামী ৪ঠা জানুয়ারি রোজ শনিবার । আর প্রতিষ্ঠানের ২০ বছর পূর্তি অনুষ্টান কে ঘিরে চলছে উপজেলায় ব্যাপক আয়োজন । ১৯৯৫ সালে যাত্রা শুরু করে এই প্রতিষ্ঠান । বর্তমানে কলেজের তিনটি ভবনে চার শতাধিক শিক্ষার্থী পড়া লেখা করছে ।

স্থানীয়রা জানান, চট্টগ্রাম এর বিশিষ্ট শিল্পপতি দানবীর হাজী এমএ কালাম কে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করার অনুরোধ করেছিলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল।অনগ্রসর এই জনপদের মানুষের কথা চিন্তা করে তিনি প্রতিষ্ঠা করেন এই কলেজ । আর তৎকালীন সময়ে তরুণ রাজনীতিবিদ এবং বর্তমানে ৩০০নং আসনের এর সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতির দায়িত্ব নেন । আর দায়িত্ব নেওয়ার পর আলোর মুখ দেখে প্রতিষ্ঠানটি । ১০ একর জমির উপর দাঁড়িয়ে থাকা এই প্রতিষ্ঠানটি ১৯৯৫ সাল থেকে উন্নয়নের মাধ্যমে গুঁটি গুঁটি পায়ে পাড়ি দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি আজ ২০ বছরে ।

এ বিষয়ে কলেজ এর অধ্যক্ষ ও আ ম রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুরের চেষ্ঠায় কলেজের অনেক উন্নয়ন হয়েছে । কলেজের ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে কলেজ প্রাঙ্গনে আড়াই হাজার শিক্ষার্থীর সমাগম ঘটবে বলে আশা করছি । আর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি ।

এদিকে কলেজ কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থয়ানে কলেজের নবনির্মিত ৬ তলা বিশিষ্ট মহিলা হোষ্টেল উদ্বোধনের কথা রয়েছে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর । এছাড়াও কলেজের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখার কথা রয়েছে ।

দিনব্যাপী পূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে থাকার কথা রয়েছে-কক্সবাজার ৩ (রামু) এর সংসদ সদস্য সায়মুম সরওয়ার কমল, কক্সবাজার ৪ মহেশখালীর সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক,বান্দরবান সেনা রিজিওন কমান্ডার ব্রিঃ জে যুবায়ের সালেহীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা এবং জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক সহ আরো অনেকে ।

প্রস্তুতির বিষয়ে কলেজের প্রভাষক মোঃ শফিউল্লাহ জানিয়েছেন, প্রতিমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে কলেজ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে । উন্নয়ন বোর্ড এর অধীনে নব নির্মিত হোস্টেল ভবন উদ্বোধনের কথা রয়েছে ।

এদিকে, প্রতিমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে এরই মধ্যে প্রধান সড়কগুলোতে আওয়ামীলীগ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের তোরণ, পোষ্টার এবং ফেস্টুনে পুরা শহর ছেয়ে গেছে ।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বদর উল্লাহ বলেন, একটি পুরস্কার বিতরণী সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে প্রতিমন্ত্রীর । এসময় কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে তিনি পুরস্কার তুলে দিবেন ।

প্রতিমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামীলীগ এর যুগ্ন আহ্বায়ক তসলিম ইকবাল চৌধুরী বলেন, নাইক্ষ্যংছড়ি চাকঢালা স্থলবন্দর নির্মাণের বিষয়ে জনগণের মধ্যে ব্যপক সাড়া জাগিয়েছে । তাই উপজেলায় পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর এবারের আগমন একটু ভিন্নতম ।

তিনি আরো বলেন,উপজেলায় প্রতিমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠন থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে । এছাড়াও এলাকাবাসীর বহুল প্রত্যাশিত দাবি শিশু পার্কটি আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করার কথা রয়েছে ।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।