৯০ জন সেচ্ছাসেবক কাজ করছে বান্দরবানের তিন উপজেলায়

করোনা ভাইরাসের আক্রমন ঠেকাতে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে বান্দরবানের তিন উপজেলায় প্রশিক্ষিত ৯০জন সেচ্ছাসেবককে পাঠানো হয়েছে। উপজেলা গুলো হলো, জেলার লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা। আর এনিয়ে এস বাসু দাশ এর প্রতিবেদন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জেলার পাশ্ববর্তী জেলা কক্সবাজারে করোনা রোগীর সন্ধান পাওয়ার কারনে করোনা সংক্রামন রুখতে গত ২৪ মার্চ রাতে জেলার ৭টি উপজেলার মধ্যে লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলাকে লকডাউন করে প্রশাসন। তাই জেলার উপজেলাগুলোতে বসবাসরতদের মাঝে আতংক বিরাজ করে। এর ফলে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্দ্যোগে আতংক কাটাতে ও করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতন করতে লামায় ৩০ জন, নাইক্ষ্যংছড়িতে ৩০জন ও আলীকদমে ৩০জন সেচ্ছাসেবককে পাঠানা হয়।

আরো জানা গেছে, সেচ্ছাসেবকরা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে জীবাণুনাশক স্প্রে, সেই সাথে জনসচেতনতামুলক লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করার কার্যক্রম চালিয়ে যাবে, এর পাশাপাশি তারা উপজেলাগুলোর তরুণদের করোনা সম্পর্কে বিশেষ প্রশিক্ষন প্রদান করবে।

এই ব্যাপারে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা পাহাড়বার্তাকে বলেন, বান্দরবানের মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিল, বিডি ক্লিনসহ বিভিন্ন সংগঠনের প্রশিক্ষিত তরুণদের উপজেলাগুলোতে পাঠানো হয়েছে, তারা করোনা মোকাবেলাই কাজ করবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ মার্চ বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ করোনা ভাইরাস ঠেকাতে জেলার ৩শ সেচ্ছা সেবকদের প্রশিক্ষন প্রদান করে, এসময় বান্দরবানের বিভিন্ন গ্রাম ও পাড়ার বাসিন্দাদের নিরাপত্তার জন্য স্বেচ্ছাসেবকদের গামবুট, মাস্ক, রেইন কোট, গ্লাবস ও স্প্রে মেশিন প্রদান করা হয়। সেচ্ছাসেবকরা বান্দরবান পৌর এলাকার ৯ ওয়ার্ডে ৯টি দলে ভাগ হয়ে বিভিন্ন স্থানে জীবাণুনাশক স্প্রে, সেই সাথে জনসচেতনতামুলক লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।