দেশের কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না : মন্ত্রী বীর বাহাদুর

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেছেন, বাংলাদেশে আর কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না। দেশের প্রতিটা মানুষের জন্য আশ্রয়ণের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার দুপুরে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার সদর ইউনিয়নে পরিষদ প্রাঙ্গণের অসচ্ছল প্রান্তিক পরিবারের মাঝে গাভী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন ।

মন্ত্রী আরো বলেন, দেশের প্রতিটি মানুষের দারিদ্র্যতা দূরীকরণের জন্য সরকার গাভী বিতরণ, একটি বাড়ি একটি খামার সহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বান্দরবান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ফাতেমা পারুল, মোজাম্মেল হক বাহাদুর, পৌরসভা মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের অস্বচ্ছল ও প্রান্তিক পরিবারের নারী উন্নয়নে গাভী পালন প্রকল্পের পরিচালক হারুণ অর রশিদ, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন ইয়াছির আরাফাত ।

এ সময় মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশ ও বাঙ্গালী জাতীকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। তাঁর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাও দেশ ও জাতীর অর্থনৈতিক স্বাধীনতার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, তিন পার্বত্য জেলা এখন আর বোঝা নয় । তিন পার্বত্য জেলা এখন সম্পদে ভরপুর, উন্নয়নের রোল মডেল।

পরে আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলেল অসচ্ছল ও প্রান্তিক পরিবারের নারী উন্নয়নে গাভী পালন র্শীষক প্রকল্পের ৭০ জন উপকারভোগীদের মাঝে গাভী বিতরণ করেন পার্বত্য মন্ত্রী।

এর আগে মন্ত্রী উপজেলার পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ৩০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নোয়াপাড়া বৌদ্ধা নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও ৩০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নয়া পড়া ইউনিয়ন পরিষদের বায়তুল মাহতুদ মসজিদের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন । এছাড়াও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের টি আর কাবিটা প্রকল্পের আওতায় ৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত গৃহহীনদের জন্য দুর্যোগ সহনীয় বাস গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের চাবি উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করেন।

পরে জলবায়ু ট্রাস্ট্রের অর্থায়নে লামা উপজেলা সদরে লামা পৌরসভা এলাকায় স্থাপিত সোলার স্ট্রীট লাইট উদ্বোধন, মধুঝিরি মাষ্টার পাড়া, লামা থানার রাস্তা, নারকাটা ঝিরি রাস্তা, কলিঙ্গা পাড়ার রাস্তা, নয়াপাড়া মিশন রাস্তার আরসিসি ও ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসার চার তলা ভবন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ।

এরপর তিনি লামা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে দূর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ প্রকল্পের আওতায় নব নির্মিত ২২ উপকারভোগীর মাঝে ঘরের চাবি এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের অস্বচ্ছল ও প্রান্তিক পরিবারের নারী উন্নয়নে গাভী পালন প্রকল্পের নির্বাচিত ৪০ উপকারভোগী নারীদের হাতে গাভী তুলে দেন বলে জানান পৌরসভা মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।