বান্দরবানের গৃহহীন ৩৩৯টি পরিবারের হাতে ঘরের চাবি

বান্দরবানে প্রথম পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৩৩৯টি ঘর পেল ভূমি ও গৃহহীন পরিবার।আজ শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গৃহহীনদের মধ্যে এ ঘরগুলোর হস্তান্তর প্রক্রিয়ার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সকালে বান্দরবান জেলা প্রশাসক এর সভাকক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি,৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো:জিয়াউল হক (এনডিসি,এএফডব্লিউ,পিএসসি),পুলিশ সুপার জেরিন আখতার,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক লুৎফুর রহমানসহ সরকারি বেসরকারী উর্ধতন কর্মকর্তা এবং ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন,পার্বত্য এলাকায় কেউ গৃহহীন থাকবে না। বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল সম্প্রদায়ের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছে আর তারই সুফল পাচ্ছে দেশের সাধারণ জনসাধারণ।

এসময় পার্বত্য মন্ত্রী আরো বলেন,পার্বত্য এলাকায় যে উন্নয়ন হচ্ছে তাতে আগামী কয়েক বছরে এই এলাকার শিক্ষা,স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন সকলের চোঁখে পড়বে এবং পার্বত্যবাসী সরকারের এই সুফল ভোগ করছে এবং করে যাবে।

এসময় মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রথম পর্যায়ে বান্দরবানের সাতটি উপজেলার ৩শত ৩৯টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর প্রদান উপলক্ষে গৃহ হস্তান্তরের সনদপত্র হাতে তুলে দেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর। নতুন ঘর ও জমির সনদপত্র হাতে পেয়ে আনন্দে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের সদস্যরা।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বান্দরবানের সাত উপজেলায় ৬ হাজার ৮শত ৬৭ জন গৃহহীন পরিবারের তালিকা করা হয়েছে এবং প্রথম পর্যায়ে ২হাজার ১শত ৩৪টি বাড়ী তৈরির কাজ চলমান রয়েছে এবং প্রাথমিকভাবে তৈরি ৩শত ৩৯টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর দেয়া শেষে পর্যায়ক্রমে বাকীদের গৃহ হস্তান্তরের সনদপত্র প্রদান করা হবে।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. থোয়াইসিংউ মার্মা বলেছেন

    অামার বাড়ি নিজস্ব গ্রাম হচ্ছে বৈদ্য পাড়া তো গত বছরে শুরু থেকে ২নং ইউনিয়ন মেম্বার অামার বাড়ি তাকে ছবি তুলে নিংে গেছিলো তখন ওনি বলেছেন সরকার বাড়ি কৈরি করে দিবেন কিন্তু হচ্ছে না কারন টা জানতে পারলে ভালো হয় বাড়িটি নাম তালিকা করে নিয়ে গেছেন মাছোচিং মারমা অামার মায়ের নামে মাকে বলেছিলো অামাদের ইউনিয়ন মেম্বার

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।