বান্দরবানে আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের অবহিতকরণ সভা

বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) এর উদ্যোগে আমাদের জীবন,আমাদের স্বাস্থ্য,আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের কার্যক্রম অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদের হল রুমে বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সঞ্জয় মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ অংসুই প্রু মারমা,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.রেজা সরোয়ার,ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা.মং টিং ঞো,পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচাক ডা.অং চালু, সমাজ সেবার উপ-পরিচালক মিলটন মুহুরী,সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান য়ই সা প্রু ,অনন্যা কল্যাণ সংগঠন (একেএস) এর নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রু নেলী,বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) এর মাস্টার ট্রেইনার সুমিত বণিক, প্রকল্পের প্রকল্প সমন্ধয়কারী ম্যামিসিং মারমা,দুনীর্তি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অং চা মং,প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু,এডভোকেট মাধবী মার্মা,সাহারা সুদীপা ইউনুছ, গ্রাউস এর প্রকল্প সমন্বয়কারী সবুজ চাকমা,তহ্জিংডং এর নির্বাহী পরিচালক চিং সিং প্রু,সাংবাদিক বুদ্ধজ্যোতি চাকমাসহ আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের কর্মকর্তা এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

সভায় বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) এর মাস্টার ট্রেইনার সুমিত বণিক প্রকল্পের কার্যক্রম উপস্থাপন করতে বলেন, বিএনপিএস ১৯৮৬ সাল থেকে নারী-পুরুষের সমতা প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে আসছে। অধিকারভিত্তিক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা হিসেবে বিএনপিএস তৃণমূল পর্যায়ে কিশোরী,নারী-পুরুষদের সংগঠিত ও সচেতন করে তাদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এর পাশাপাশি বিএনপিএস জাতীয় পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট আইন, নীতি ও পদ্ধতিকে নারী ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য সহায়ক করে তুলতে নীতি নির্ধারণী পর্যায়ে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে, এরই ধারাবাহিকতায় তিন পার্বত্য জেলায় বিএনপিএস এর নারীর স্বাস্থ্য ও মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন এবং নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে “আমাদের জীবন আমাদের স্বাস্থ্য আমাদের ভবিষ্যৎ” প্রকল্পের ৫বছর মেয়াদি কার্যক্রম স্থানীয় সহযোগী সংগঠনের মাধ্যমে বাস্তবায়ন চলমান রয়েছে। ২০১৯ সাল হতে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও সিমাভি নেদারল্যান্ডস-এর অর্থায়নে এই প্রকল্প বাস্তবায়নে ৩পার্বত্য জেলার ১০টি স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা বাস্তবায়ন সহযোগী হিসেবে কাজ করছে।

এসময় সিভিল সার্জন ডাঃ অংসুই প্রু মারমা বলেন,সরকারি-বেরসকারি সমন্বয়ের মাধ্যমেই আমাদের সেবাগুলো নিশ্চিত করতে হবে। বাল্যবিবাহ, প্রজনন স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে হবে। প্রজনন স্বাস্থ্য, মাসিক ব্যবস্থাপনা,বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্য সহ বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করার ক্ষেত্রে সরকারি-বেসরকারি সমন্বয়ের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, যুব উন্নয়ন,সমাজ সেবা বিভাগ, মৎস্য বিভাগ, প্রাণীসম্পদ বিভাগ, কৃষি বিভাগ, সমবায় বিভাগ এবং প্রশাসনের সকলকে অন্তর্ভূক্ত করে কাজ করতে পারলে কিশোরী ও নারীদের উন্নয়ন হবে।

সমাজ সেবার উপ-পরিচালক মিলটন মুহুরী বলেন,স্বাস্থ্য,খাদ্য,পুষ্টি ইত্যাদি বিষয়ে কিশোরীদেরকে সচেতন করে তুলতে হবে, তাহলেই কিশোরীদের শারিরীক বৃদ্ধি সঠিকভাবে হবে। পাশাপাশি কিশোরী ও নারীদের মানসিক স্বাস্থ্যের দিকেও আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে। মানসিক ও শারিরীক স্বাস্থ্য ঠিক থাকলে কিশোরীরা স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারবে।

প্রসঙ্গত,বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের উদ্যোগে এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা একেএস, গ্রাউস ও তহ্জিংডং এর সার্বিক সহযোগিতায় বান্দরবানে আমাদের জীবন,আমাদের স্বাস্থ্য,আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং এই প্রকল্পের মাধ্যমে জেলায় ৯০জন মেন্টর, ৯০টি ক্লাব ও ৩হাজার ৬শ কিশোরী সদস্য কাজ করছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।