বান্দরবান সদর হাসপাতালে উদ্বোধন হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্ট

করোনা রোগীদের জরুরি প্রয়োজনে অক্সিজেন সাপোর্ট দেয়ার জন্য দেশের ৬২টি হাসপাতালে সেন্টাল অক্সিজেন প্লান্ট বসানো হচ্ছে,আর এরই ধারাবাহিকতায় পার্বত্য জেলা বান্দরবানের সদর হাসপাতালে শেষ হয়েছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্ট এর কাজ। আগামী ১৩ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্ট এর আনুষ্টানিক উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

হাসপাতালে ভর্তিকৃত জটিল রোগীদের সার্বক্ষণিক অক্সিজেন সরবরাহ করার লক্ষে বান্দরবান সদর হাসপাতাল প্রাঙ্গনে শেষ হয়েছে সেন্টাল অক্সিজেন প্লান্ট বসানোর কার্যক্রম। বিশেষ করে করোনা আক্রান্ত রোগীদের মৃত্যুর পথ থেকে বাঁচাতে প্রয়োজন হয় সার্বক্ষনিক অক্সিজেনের কিন্তুু বান্দরবান সদর হাসপাতালে অক্সিজেনের পর্যাপ্ত মজুদ না থাকার পাশাপাশি বিভিন্ন সমস্যার কারণে বেশিরভাগ সময়ই করোনা রোগী ও জটিল রোগীদের চট্টগ্রাম বা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হত। তবে এবার বান্দরবান সদর হাসপাতাল প্রাঙ্গণে ৩কোটি ২৫লক্ষ ৯৫ হাজার টাকা ব্যয়ে বসানো হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্ট, আর এই প্লান্ট থেকে পাইপের মাধ্যমে পুরো হাসপাতালের ১শ শয্যায় অক্সিজেন সরবরাহ করার মাধ্যমে রোগীদের সার্বক্ষনিক অক্সিজেন সরবরাহ করার আশা করছে সংশ্লিষ্টরা।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এর অর্থায়নে কাজটি বাস্তবায়ন করছে এসপেকটা লিমিটেড,আর এই সেন্টাল অক্সিজেন প্লান্টটি স্থাপনে সার্বক্ষনিক তদারকি করছে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর বান্দরবান। স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর বান্দরবান এর সহকারী প্রকৌশলী মো.মোরশেদুল আলম বলেন,এই অক্সিজেন প্ল্যান্টটি চালু হলে বান্দরবানের রোগীরা আর অক্সিজেন এর অভাবে কষ্ট পাবে না। এই অক্সিজেন প্লান্ট এ ১ হাজার লিটার অক্সিজেন থাকবে এবং ১০০শয্যা বিশিষ্ট বান্দরবান সদর হাসপাতালের সকল বেডের রোগীরা অক্সিজেন সেবা পাবে। সহকারী প্রকৌশলী মো.মোরশেদুল আলম আরো বলেন,আগামী ১৪ এপ্রিলের মধ্যে নতুন স্থাপিত এই অক্সিজেন প্লান্টটি পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি উদ্বোধনের কথা রয়েছে আর উদ্বোধনের পরপরই এই অক্সিজেন প্লান্ট থেকে সরবরাহ করা হবে পুরে হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন।

এদিকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা বলছে,করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর প্রধান কারণ হচ্ছে অক্সিজেনের স্বল্পতা,হাসপাতালে থাকা অক্সিজেনের বোতলগুলো থেকে পর্যাপ্ত অক্সিজেন দিয়ে করোনা রোগীসহ জটিল রোগীদের চিকিৎসা দেয়া সম্ভব না হওয়ায় এই পর্যন্ত বান্দরবানে শুধু করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৪জন আর পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ এর অভাবে বান্দরবান থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে কয়েকশতাধিক করোনা আক্রান্ত রোগীসহ বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত রোগী। চিকিৎসকেরা বলছে এই সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্টটি চালু হলে বান্দরবান সদর হাসপাতাল থেকে রোগীদের সার্বক্ষনিক অক্সিজেন এর অভাবে রেফার করার প্রয়োজন হবে না এবং করোনা রোগীর পাশাপাশি বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত রোগীরাও উন্নত সেবা পাবে।

বান্দরবান এর সিভিল সার্জন ডা:অংসুই প্রু মারমা বলেন,ইতিপূর্বে বান্দরবান সদর হাসপাতালে আগত অনেক করোনা রোগী পর্যাপ্ত অক্সিজেনের অভাবে কষ্ট পেয়েছে এবং অনেক রোগীকে আমরা চট্টগ্রামে জরুরীভাবে প্রেরণ করেছি তবে এবার এই সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্টটি চালু হলে আমাদের যে সকল রোগীদের সার্বক্ষণিক অক্সিজেনের দেয়া প্রয়োজন হবে তারা পর্যাপ্ত অক্সিজেন পাবে।

করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিরবিচ্ছিন্ন ও অব্যহত রাখতে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, আর তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে বান্দরবান সদর হাসপাতালে প্রথম এই সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্ট এর কার্যক্রম শুরু হলে করোনা রোগীর পাশাপাশি বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত রোগীরা নিরবিচ্ছিন্ন অক্সিজেন সেবা পাবে বলে প্রত্যাশা সাধারণ জনগণের।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।