রাঙ্গামাটিতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ : যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

রাঙ্গামাটিতে এক শিক্ষার্থীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অপরাধে এক যুবককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। একই সঙ্গে ৫ লাখ টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৩ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। কারাদণ্ডপ্রাপ্ত যুবকের নাম মো. ফারুক (৪০)।

মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাঙ্গামাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এইএম ইসমাইল হোসেন এ রায় দেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাঙ্গামাটির কাউখালী উপজেলায় বেতবুনিয়া ইউনিয়নের ডলুছড়ি গ্রামের সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে তার মায়ের আপন ফুফাতো ভাই মো. ফারুক বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কয়েক দফায় ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর কাউকে কিছু বলতে নিষেধ করার পর এক পর্যায়ে মেয়েটি গর্ভবতী হয়ে গেলে তার পরিবার বিষয়টি জানতে পারে। পরবর্তীতে মেয়েটি সন্তান প্রসবের ৩ দিন পর নবজাতকের মৃত্যু হয়। পরবর্তীতে ডিএনএ টেস্টেও নবজাতকের পিতা মো. ফারুক প্রমাণিত হয়।

রাঙ্গামাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মো. সাইফুল ইসলাম অভি জানান, এই রায়ের মধ্যে দিয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। আমরা রায়ে সন্তুষ্ট। অর্থদণ্ড থেকে প্রাপ্ত টাকা বাদীর পরিবারকে দেয়া হবে। আগামী ৯০ দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে না পারলে সম্পত্তি ক্রোক করে প্রাপ্ত অর্থ ভিকটিমকে দিতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সুম্মিতা চাকমা বলেন, এ রায়ে আমরা সংক্ষুব্ধ, আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।